এক রাতেই উধাও হবে ত্বকের ব্রণ

অনেকেই ত্বকে ব্রণের সমস্যায় ভুগে থাকেন। আর সেসময় ত্বকে কি ব্যবহার করবেন বা করবেন না? তা নিয়ে বেশ চিন্তায় থাকতে হয়।

অনেক সময় কিছু সাধারণ পদ্ধতি মেনে চললে অ্যাকনে, পিম্পল বা ব্রণ কমে যায়। তবে সেটা রাতারাতি হুড়মুড় করে হবে না। সময় লাগবে।

তবে যদি আপনার এত ধৈর্য না থাকে, তাহলে এই চটজলদি টোটকাগুলো ট্রাই করে দেখুন। এক রাতেই আপনার ব্রণ ছুমন্তর হবেই-

প্রথমত : প্রথমেই সবচেয়ে সস্তা আর সবচেয়ে সহজ পন্থাটি হলো বরফ কিউব কাপড়ে মুড়ে ব্রণের উপরে আলতো করে চেপে ধরুন। এতে ব্রণ ভিতর থেকে শুকিয়ে যাবে। ২০ সেকেন্ড মতো রাখবেন। দিনে দু’বার এটা করা যায়।

দ্বিতীয়ত: মধুর অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ ব্রণ সারিয়ে তুলবে। রাতে এক দু’ফোঁটা লাগিয়ে দিন ব্রণে। সকালে উঠে ধুয়ে ফেলুন।

তৃতীয়ত : অ্যান্টিব্যাকটেরিয়াল গুণ আছে টি ট্রি অয়েলেও। দাম একটু বেশি, তবে কাজ দেয় মারাত্মক। সরাসরি এটা লাগাবেন না। দু’ফোঁটা নিয়ে তার সঙ্গে নারকেল তেল মিশিয়ে পিম্পলে লাগাবেন। কয়েক ঘণ্টা রেখে হালকা গরম পানিতে ধুয়ে ফেলুন।

চতুর্থত : অ্যাস্পিরিন ট্যাবলেট গুঁড়ো করে পেস্ট বানিয়ে ব্রণে লাগান। এর অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি গুণ আপনার ব্রণ সারিয়ে দেবেই দেবে।

পঞ্চমত : একই গুণ আছে গ্রিন টিয়েরও। ওই চায়ের টি-ব্যাগ গরম পানিতে দিয়ে ফুটিয়ে নিন। তারপর ঠান্ডা হলে ব্রণে লাগান।

ষষ্ঠত: অ্যালোভেরার নির্যাস ব্রণে লাগান। কেনা জেল এড়িয়ে চলাই ভালো, এতে রাসায়নিক থাকতে পারে।

ব্রণ হলে চেষ্টা করবেন বেশি রাসায়নিকযুক্ত কোনো বিউটি প্রোডাক্ট ব্যবহার না করতে। আর অবশ্যই ব্রণে হাত দিয়ে টিপে বা খুঁটে দেখার অভ্যাসটা এবার ত্যাগ করুন।