ছেলের জন্য মাথা নোয়াতে হলো : কুমার শানু

করোনা আক্রান্ত হয়েছিলেন কিংবদন্তি সংগীত শিল্পী কুমার শানু। কিন্তু করোনা সেরে গেলেও এখন ভুগছেন নিউমোনিয়ায়, রয়েছেন আমেরিকায়।

সেখানে তাকে বেশ সহযোগিতা করেছেন গায়ক শান। খবর- আনন্দবাজার পত্রিকা।

কুমার শানু বলেন, আমার অসুখের সময়ে শান যে ভাবে সাহায্য করেছে, জীবনে ভুলবো না। চিকিৎসকদের পরামর্শ তো আমি নিচ্ছিলামই। কিন্তু শান তার পরিচিত চিকিৎসকদের সঙ্গে কথা বলে আমার পাশে থেকেছে। দিনকয়েক আগেই আমেরিকায় এসেছি। আগের চেয়ে অনেকটাই ভাল আছি।

তবে করোনা কাটিয়ে উঠতে না উঠতেই পুত্র জানকে নিয়ে বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন গায়ক।

সম্প্রতি জান রিয়্যালিটি শো ‘বিগ বস’-এ অংশগ্রহণ করছেন। সেখানেই ‘স্বজনপোষণ’ বিতর্কে জড়িয়ে পড়লে জান পরিষ্কার জানান যে, তিনি তারকাপুত্র হিসেবে কোনও সুবিধে পাননি। তার মা’ই তাকে মানুষ করেছেন। গত ২৭ বছর পিতা-পুত্রের মধ্যে বিশেষ যোগাযোগ ছিল না। শানুও সে কথা মেনে নিয়ে বলেন, জানের মা’ই ওকে মানুষ করেছে। আমার তাতে কোনও ভূমিকা ছিল না।

কিন্তু ছেলেকে নাকি এই রিয়্যালিটি শোয়ে অংশগ্রহণ করতে বারণ করেছিলেন তিনি! জানের কাছে এই শোয়ের অফার এলে ও আমার মত জানতে চায়। আমি তখনই ওকে বারণ করেছিলাম। পরের সিদ্ধান্ত তার নিজের। তবে এখন ও ভালই খেলছে।

শোয়ে মরাঠি ভাষা প্রসঙ্গে জানের নেতিবাচক মন্তব্য নিয়ে তৈরি হয় বিতর্ক। জান মরাঠিদের ভাবাবেগে আঘাত করার জন্য, কুমার শানু সকলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নেন। সে প্রসঙ্গে আক্ষেপ করে তিনি বলেন, গত চল্লিশ বছরে কখনও মাথা নোয়াতে হয়নি আমাকে। কিন্তু জানের জন্য ক্ষমা চাইতে হয়েছে সকলের কাছে। এসব প্রশ্ন আসতই না, যদি ও সেখানে না যেত। জানের বয়স কম। ওর পক্ষে এসব সামলে চলা কঠিন। সে জন্যই আমি বারণ করেছিলাম।

তবে শানুর মেয়ে শ্যানন অনলাইনে জানের এপিসোড ফলো করেন। শানু বললেন, এ বিষয়ে ওর মায়েরও আপত্তি নেই। ভাই-বোন নিজেদের মধ্যে কথা বলে নেবে। ভালই হবে।

x