কিডনি বিক্রি করে আইফোন কিনে যুবকের ভয়াবহ পরিণতি

অ্যাপেলের ফোন হোক বা আইপ্যাড দাম সব সময় অনেকটাই বেশি। যা সাধারণ মানুষ চাইলেই সব সময় কিনতে পারেন না। তবে আজকাল যদিও অনেক রকম ইএমআই অপশন আছে।

তবুও অনেকেই মজা করে বলেন কিডনি বেঁচে আইফোন কিনতে হবে। মজার কথাটি এবার বাস্তবে রুপান্তর করলো এক কিশোর। সত্যিই কিডনি বেঁচে আইফোন কিনলেন ১৭ বছরের কিশোর।

বিবিসির একটি প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, ৯ বছর আগে ঘটনাটি ঘটেছে। ওয়াং শাংকুং নামের ওই যুবকের বয়স ছিল মাত্র ১৭ বছর। সে সময় বাজারে আইফোন ৪এস এবং আইপ্যাড ২ বাজারে আসে। এই দুটি কেনার জন্য মরিয়া হয়ে ওঠে ওই যুবক। কিন্তু তার পরিবারের সামর্থ্য না থাকায় এক ব্যক্তির সঙ্গে তার কথা হয় এবং বেশ কিছু টাকায় সে নিজের কিডনি বিক্রি করতে রাজি হন। পরে কিডনি বিক্রি করে সে যে টাকা পায় তা দিয়ে সে আইফোন ৪এস এবং আইপ্যাড ২ কিনে নেয়।

এরপর ৯ বছর কেটে যায়। হঠাৎ তার শরীর খারাপ করতে থাকে। শাংকুং-কে হাসপাতালে ভর্তি করলে জানা যায়, তার একটি কিডনি নেই। তখনই জানা যায় গোটা ঘটনা। এখন শাংকুং-কে প্রতিদিনই ডায়ালিসিস করাতে হচ্ছে। জানা যায় একটি লোকাল ক্লিনিকে তার কিডনির অপারেশন হয়। এই ঘটনার তদন্তে নয়জনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। তবে ওই যুবককে বাঁচানো যাবে কিনা তা নিয়ে সন্দেহ রয়ে গিয়েছে।

x