ছেলের নামের অংশ থেকে বাবার নাম ফেলে দিতে বললেন কুমার শানু

বলিউডের নামী সংগীতশিল্পী কুমার শানুর সঙ্গে তার ছেলে জান কুমার শানুর সম্পর্ক বেশ তিক্ত। ‘বিগ বসে’র ঘর থেকে বেরিয়েই ছেলে তার উপরে ক্ষোভ উগরে দিয়েছিলেন।

এবার পাল্টা জবাবে ছেলেকে নিজের নাম থেকে বাবার নামের অংশ বাদ দেওয়ার ‘পরামর্শ’ দিলেন কুমার শানু।

জান কুমার শানু সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে বলেছিলেন, তার মা-ই তাদের তিন ভাইকে মানুষ করেছেন। বাবা কোনো খোঁজ খবর নেন নি। আমি জানি না কেন বাবা কখনও আমাকে গায়ক হিসেবে প্রমোট করেননি। ইন্ডাস্ট্রিতে এমন বহু তারকা রয়েছেন যাদের ডিভোর্স হয়েছে, আবার বিয়েও করেছেন। কিন্তু সন্তানদের কখনও এতদিন ধরে অবহেলা করেননি।

তার লালন-পালন, শিক্ষা নিয়ে প্রশ্ন করার অধিকার কারও নেই বলে তিনি কটাক্ষ করেন বাবাকে। ছেলের এমন মন্তব্যের পর অভিমান থেকেই এই ‘পরামর্শ’ দিলেন কুমার শানু।

কুমার শানুর কথায়, ‘আমি ওকে এক সাক্ষাৎকারে এবং ‘বিগ বস’ -এর ঘরেও বলতে শুনেছি, ওর মা-ই ওর কাছে বাবা ও মা। মায়ের প্রতি ওর এমন শ্রদ্ধার আমি প্রশংসা করছি। কিন্তু ওর উচিত নিজের নাম বদলে জান রীতা ভট্টাচার্য করে দেওয়া। কারণ প্রথমত, রীতা ওর জন্য অনেক করেছে। দ্বিতীয়ত, আমার নাম রাখলে লোকে আমার সঙ্গে ওকে তুলনা করবে। একজন নবাগতর পক্ষে এটা ভাল নয়।’

এর আগে ‘বিগ বস’-এ মারাঠি ভাষা সম্পর্কে অবমাননাকর মন্তব্য করার অভিযোগ উঠেছিল জান কুমার শানুর বিরুদ্ধে। সেই সময় থেকেই প্রকাশ্যে আসে বাবা-ছেলের সংঘাত। ছেলের এমন মন্তব্যের বিরোধিতা করেন কুমার শানু। এক ভিডিও বার্তায় তিনি বলেন, ‘আমি শুনেছি আমার ছেলে জান খুবই খারাপ একটি কথা বলেছে। যা আমি এই ৪০-৪১ বছর ধরে কখনও ভাবতে পারিনি।’

তিনি সাফ জানান, ২৭ বছর ধরে ছেলের সঙ্গে থাকেন না তিনি। ছেলেকে যা শিক্ষা দেওয়ার তার প্রাক্তন স্ত্রী রীতাই দিয়েছেন। অর্থাৎ প্রায় সরাসরিই ছেলের বিতর্কে জড়িয়ে পড়া থেকে নিজেকে সরিয়ে নেন তিনি।