হবু শ্বশুরের সঙ্গেই বিয়ে হল কনের!

ঘটনা চলতি অক্টোবরের। ভারতের বিহার রাজ্যে সেদিন বিয়ের পিঁড়িতে বসার কথা ছিল স্বপ্না (২১) নামের এক নারীর। বিয়েও হয়েছিল।

কিন্তু বরের সঙ্গে নয়, হবু শ্বশুরের সঙ্গে।লগ্ন অনুযায়ী বিয়ের দিন রাজ্যের সমস্তিপুর এলাকায় কনের বাড়িতে হাজির হন বরপক্ষ। এমন সময়ে প্রেমিকাকে নিয়ে পালিয়ে যান বর।দুই পক্ষই এতে বেশ নাস্তানাবুদ হয়। শেষমেষ সম্মান বাঁ’চাতে এক অদ্ভূত সিদ্ধান্ত নেন কনের বাবা। তিনি নিজের মেয়েকে বরের বাবা রোশানের সঙ্গে বিয়ে দেয়ার প্রস্তাব দেন। এই

প্রস্তাবে রাজিও হন রোশান।এমন পরিস্থিতিতে সামাজিকভাবে কোন পথ খোলা না পেয়ে বিয়েতে রাজি হয়ে যান কনে স্বপ্নাও। ওই দিনেই ৬৫ বছর বয়সী হবু শ্বশুরের সঙ্গে মালাবদল করেন তিনি।আরও পড়ুন……প্রিয়াঙ্কা চোপড়ার মিস ওয়ার্ল্ডের নানা মুহূর্ত নিয়ে চর্চা ছিল তুঙ্গে। ছোট্ট শহরের প্রিয়ঙ্কা কীভাবে মিস ওয়ার্ল্ডের পৃথিবীতে ঢুকলেন তা নিয়ে আজও গর্বিত প্রিয়াঙ্কা ভক্তরা।তবে এই মিস ওয়ার্ল্ডের যাত্রাপথ মোটেই সহজ ছিল না। এ কথা সকলেই জানে। একের পর এক বাধা পেরিয়ে তাঁকে বিশ্বের দরবারে পৌঁছতে হয়।

নিজের প্রতিভা সকলের সামনে রাখার সুযোগ পান পিগি চপস। সেই সময় যে সকল জিনিসগুলি নিয়ে সবচেয়ে বেশি চর্চা হয়েছিল তার মধ্যে একটি হল প্রিয়াঙ্কার গাউন।লো কাট, প্লাঞ্জড নেক, পুশ আপ অফশোল্ডার গাউন। ডিজাইনার এই গাউনের সঙ্গে একটি ওরনা নিয়েছিলেন প্রিয়াঙ্কা।ভারী পাথরের হার এবং দুল পরে তাঁকে যেন রূপকথার পরীর মত দেখাচ্ছিল। তবে এই পরী সাজতে গিয়ে নানা সমস্যার সম্মুখীন হন তিনি।

এই পোশাকের কারণে তিনি ওয়ার্ডড্রোব ম্যালফাংশনের মত সাংঘাতিক জিনিসে পাল্লায় পড়তে চলেছিলেন। গাউনটি তাঁর শরীরের সঙ্গে টেপ দিয়ে আটকানো হয়েছিল। সঠিক মাপের গাউন না হওয়ায় এমনটা করতে হয়েছিল তাঁকে।তবে টেনশনের কারণে তাঁর সেই টেপ খুলে গিয়েছিল। রিস্ক নিয়ে ব়্যাম্পে হেঁটেছিলেন প্রিয়াঙ্কা। হাত জোর করে নমস্কার করেই গোটা ব়্যাম্প হেঁটেছিলেন তিনি। তবে সেটাই ছিল তাঁর ট্যাকটিক।