ভাস্কর্য-মন্দির পাহারায় চরমোনাইয়ের ৩০০ স্বেচ্ছাসেবক!

ইসলামী আন্দোলন এর উদ্যোগে বুধবার (১৬ ডিসেম্বর) বরিশাল নগরীতে বিজয় দিবসের সমাবেশ ও ‘বিজয় র‌্যালি’ অনুষ্ঠিত হয়েছে। এসময় জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য ও ম্যুরালসহ মন্দিরের নিরাপত্তার দায়িত্বে ছিলেন চরমোনাই পীরের অনুসারীরা।

অনুষ্ঠিত বিজয় দিবসের সমাবেশ ও র‌্যালির সময়টুকুতে অন্য কেউ এসে চলমান ইস্যুর বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্য-ম্যুরাল ও মন্দির ভাঙচুর করে নাশকতার তৈরি করে ইসলামী আন্দোলনের ওপর দায় চাপাতে না পারে সে জন্যই এই সিদ্বান্ত নেওয়া হয়েছিলো।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন ইসলামী ছাত্র আন্দোলন বাংলাদেশ কেন্দ্রীয় কমিটির প্রচার সম্পাদক কেএম শরীয়তউল্লাহ। তিনি বলেন, বিজয় দিবস উপলক্ষে নগরীতে সমাবেশের আয়োজন করেছে ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ।

‘এই সমাবেশকে কেন্দ্র করে কোনো দুষ্কৃতিকারী যাতে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ভাস্কর্য বা ম্যুরাল এবং মন্দির বা গীর্জায় হামলা চালিয়ে আমাদের উপর দোষ চাপাতে না পারে সেজন্য আমরা আমাদের স্বেচ্ছাসেবক দিয়েছি সেসব স্থানগুলোতে নিরাপত্তার জন্য।’

তিনি আরও বলেন, ইসলামী আন্দোলনের প্রোগ্রাম চলাকালীন নিরাপত্তার জন্য এই সব স্থানে সর্বমোট ৩শ স্বেচ্ছাসেবক নিয়োগ করা হয়।