যে পুরস্কার জিতে মেসি-নেইমারদের ছাড়িয়ে গেলেন রোনালদো

জীবনে কম পুরস্কার জেতেননি ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। কিন্তু ‘গোল্ডেন ফুট’ পুরস্কার কিছু জায়গায় ব্যতিক্রম। গত ১ ডিসেম্বর এ বছরের ‘গোল্ডেন ফুট’

পুরস্কারজয়ী হিসেবে নিজের নাম জানার পর রোনালদোর খুশি না হওয়ার কোনো কারণ নেই।

ফিফা ‘বেস্ট’ কিংবা ব্যালন ডি–অর-এর মতো এই পুরস্কার বারবার জেতার সুযোগ নেই। জীবনে একবারই জেতা যায়। সে জন্যও বয়স হতে হবে ন্যূনতম ২৮ বছর, থাকতে হবে সোনা ফলানো ক্যারিয়ার এবং চালিয়ে যেতে হবে খেলা। এরপরই বিবেচনা করা হয় এই পুরস্কারের জন্য।

গত ১ ডিসেম্বর এ বছরের গোল্ডেন ফুট অ্যাওয়ার্ড জিতেছেন রোনালদো। তবে রোববার ট্রফিটি হাতে পেয়েছেন তিনি। করোনার কারণে ‘বন্ধ দরজা’ পরিবেশের মধ্যে গোল্ডেন ফুট স্মারক তুলে দেয়া হয় ৩৫ বছর বয়সী জুভেন্টাস তারকাকে।

জেনে রাখা ভালো, এই পুরস্কার অর্জনে বয়স হতে হবে ন্যূনতম ২৮ বছর। থাকতে হবে সোনা ফলানো ক্যারিয়ার এবং চালিয়ে যেতে হবে খেলা। এরপরই বিবেচনা করা হয়। পুরস্কারটি তাই নিশ্চিতভাবেই রোনালদোর জন্য বিশেষ কিছু।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সেই স্মারকের ছবি পোস্ট করে রোনালদো লিখেছেন, ‘গোল্ডেন ফুট পুরস্কার জিতে সর্বকালের সেরাদের সঙ্গে আমার নাম থাকায় সম্মানিত বোধ করছি। আমাকে ভোট দেয়ার জন্য বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে থাকা সমর্থকদের আন্তরিক ধন্যবাদ।’

গোল্ডেন ফুট অ্যাওয়ার্ড বিজয়ীদের তালিকা:
রবার্তো ব্যাজ্জিও (২০০৩), পাভেল নেভদেদ (২০০৪), আন্দ্রে শেভচেঙ্কো (২০০৫), রোনালদো নাজারিও (২০০৬), ডেল পিয়েরো (২০০৭), রবার্তো কার্লোস (২০০৮), রোনালদিনহো (২০০৯), ফ্রান্সেকো টট্টি (২০১০), রায়ান গিগস (২০১১), ইব্রাহিমোভিচ (২০১২), দিদিয়ের দ্রগবা (২০১৩), আন্দ্রেস ইনিয়েস্তা (২০১৪), স্যামুয়েল ইতো (২০১৫), গিয়ানলুইগি বুফন (২০১৬), ইকার ক্যাসিয়াস (২০১৭), এডিনসন কাভানি (২০১৮), লুকা মদ্রিচ (২০১৯)

প্রসঙ্গত, গোল্ডেন ফুট অ্যাওয়ার্ড ২০০৩ সাল থেকে চালু হয়। সংবাদমাধ্যমের একটি প্যানেল প্রথমে ১০ জন ফুটবলারকে নির্বাচন করে থাকে। পরে তাদের মধ্য থেকে একজনকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়। চলতি বছর রোনালদো ছাড়াও মনোনয়ন পেয়েছিলেন মেসি, লিইয়েনডস্কি, নেইমার, আগুয়েরো, রামোস, পিকে, সালাহ, কিয়েল্লিনি ও ভিদাল। শেষ পর্যন্ত ভোটে জিতে বাজিমাত করেন রোনালদো।