‘সিংহমুখী’ রোগের চিকিৎসা

ক্লাস নাইনে আমরা সমাস পড়তাম পুরুষ সিংহের ন্যায়-সিংহ পুরুষ। কথাটি রূপক অর্থে। বাস্তবে কি কোনো পুরুষ দেখতে সিংহের মতো বা লায়ন ফেইসেস হতে পারে? এমন প্রশ্নে সবাই কিছুটা ভ্রু কুচকাতে পারেন।

হ্যাঁ, অনেক সময় মানুষ দেখতে সিংহের মতো হয়ে যেতে পারে। বোঁচা নাক, বড় বড় প্রশস্ত চোয়াল, নাসারন্ধ্র ইত্যাদি ইত্যাদি। তখন রোগের নাম হয় ‘লায়ন ফেইস সিনড্রোম’।

লায়ন ফেস সিনড্রোম এ রোগীর মুখের হাড়গুলো বড় হয়ে যায় তার চেহারা অনেকটা সিংহের মতো হয়ে যায়।

সাধারণত সিফিলিস, বোন ক্যান্সার, বা গর্ভাবস্থায় জেনেটিক মিউটেশন হয়ে সৃষ্ট হরমোনের তারতম্যে জায়গানটিজমের রোগে।

লায়ন ফেইস সিনড্রোম এর অপর নাম ক্রেনিওফেসিয়াল ফাইব্রাস ডিসপ্ললাসিয়া।

গ্রীক চিকিৎসা বিজ্ঞানী ডা. রাফোস সর্বপ্রথম এ রোগের বর্ণনা দেন।

লাউন ফেইসের চিকিৎসা

যেহেতু মুখের ম্যাক্সিলা নামক হাড়ের অতিরিক্ত ও অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পাওয়াতে মুখাবয়বের এমন পরিণতি হয়, তাই কসমেটিক বা প্লাস্টিক সার্জারি করে ম্যাক্সিলা বোন এর অতিরিক্ত অংশ প্লাস্টিক সার্জারি করে কেটে এর চিকিৎসা করা হয়।