শেষ লড়াইয়ে ব্যর্থ পাকিস্তান, জিতল নিউজিল্যান্ড

চতুর্থ ইনিংসে ৩৭৩ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে পাকিস্তানের শুরুটা ছিল দুঃস্বপ্নের। টিম সাউদি ও ট্রেন্ট বোল্টের তোপের মুখে রানের খাতা খোলার আগেই গায়েব দুই উইকেট!

শূন্য রানে দুই ওপেনারকে হারানোর ধাক্কা সামলে শেষ পর্যন্ত তিন উইকেটে ৭১ রানে চতুর্থদিন শেষ করেছে পাকিস্তান।

বুধবার (৩০ ডিসেম্বর) মাউন্ট মাউঙ্গানুইয়ের বে ওভালে ৩ উইকেটে ৭১ রান নিয়ে পঞ্চমদিন শুরু করে পাকিস্তান।

ব্যাটিংয়ে থাকা আজহার আলী ও ফাওয়াদ আলম শুরু থেকে মাটি কামড়ানো ব্যাটিংয়ে চেষ্টা করেছিলেন দলকে ড্র এনে দিতে। সেই লক্ষ্যে তারা এগিয়েও যাচ্ছিলেন। কিন্তু ১২০ বলে ৩৮ রান করে ট্রেন্ট বোল্টের বলে উইকেটরক্ষক বিজে ওয়াটলিংয়ের গ্লাভসে বন্দী হয়ে সাজঘরে ফেরেন আজহার। এরপর মোহাম্মদ রিজওয়ানকে নিয়ে বড় জুটি গড়েন ফাওয়াদ। দু’জনে গড়েন ১৬৫ রানের জুটি। ১১ বছর পর টেস্ট ক্যারিযারের দ্বিতীয় সেঞ্চুরি উদযাপন করেন ফাওয়াদ।

২০০৯ সালে অভিষেকে সেঞ্চুরি করেছিলেন। এরপরের সেঞ্চুরিটা পেতে লাগল ১১ বছর ৫ মাস ১৫দিন, অর্থাৎ ৪১৮৬ দিন। মাঝে জাতীয় দলে খেলেনইনি দশ বছর। টেস্ট ইতিহাসে দশ বছরের বেশি ব্যবধানে সেঞ্চুরিও নেই কারো।

তবে ফাওয়াদের এমন লড়াইকে ব্যর্থ করে দিয়েই পাকিস্তানের বিপক্ষে মাউন্ট মঙ্গনুইতে ১০১ রানে জয় পেয়েছে স্বাগতিক নিউজিল্যান্ড। পাকিস্তানকে ৩৭৩ রানের লক্ষ্য দিয়েছিল কিউইরা। চতুর্থ দিন সফরকারীরা শেষ করেছিল ৭১ রানে তিন উইকেট হারিয়ে। পঞ্চম দিনের শুরুতে আর চার রান যোগ করেই সাজঘরে ফেরেন আজহার আলী। ফাওয়াদের ওপর দায়িত্ব বাড়ে। তিনি সেটা পালন করেন সেঞ্চুরি করে। ২৬৯ বলে ১৪ চারে ১০২ রান করে ওয়েগনারের বলে সাজঘরে ফেরত যান ফাওয়াদ।

অধিনায়ক মোহাম্মদ রিজওয়ান ৬০ রান করে ফেরেন তার আগেই। ফাওয়াদের বিদায়ের পর মোহাম্মদ আব্বাস, নাসিম শাহ ও শাহিন শাহ আফ্রিদি চেষ্টা চালালেও শেষ পর্যন্ত দিন শেষ করতে পারেননি। নিউজিল্যান্ডর পাঁচ বোলার ট্রেন্ট বোল্ট, টিম সাউদি, নেইল ওয়েগনার, কাইল জেমিসন ও মিচেল স্যান্টনার সবাই সমান দুইটি করে উইকেট পেয়েছেন।