খাগড়াছড়িতে কুকুর-বানর দুজন দুজনার খুব প্রিয় বন্ধু!

“কুকুর দেখলেই বানরকে যেখানে দৌড়ে পালাতে দেখা যায় হরহামেশা, সেখানে ব্যতিক্রম এক ঘটনার দেখা মিলেছে খাগড়াছড়ির পানছড়িতে।

বৈরিতাকে ছাপিয়ে গড়ে উঠেছে সখ্য। পানছড়ির সবুজ পাহাড়ে আলোচিত বন্ধু জুটি এই বানর-কুকুর।”

“পানছড়ি-মাটিরাঙ্গা সড়কের ঝর্ণাটিলায় বানর-কুকুরের বিরল এ বন্ধুত্ব দেখতে প্রতিদিন ছুটে আসছেন দর্শনার্থীরা। তাদের বন্ধুত্বের বাঁধন দেখে অভিভূত হচ্ছেন বিভিন্ন বয়সের মানুষ।”

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, খাগড়াছড়ির পানছড়ি-মাটিরাঙ্গা উপজেলার সীমান্তবর্তী ঝর্ণাটিলা এলাকায় জনৈক রেজাউল করিম ও আবদুল খালেকের বাগানের দেখভাল করেন মো. হারুন অর রশিদ। তার গৃহপালিত একটি কালো কুকুর সে বাগানের পাহারাদার।

৬-৭ মাস আগে বানরের একটি বাচ্চা বাগানে পড়ে থাকতে দেখে তুলে এনে বাড়ির সবাই মিলে তাকে সুস্থ করেন। এরপর থেকেই বানরটি হারুন অর রশিদ পরিবারের এক সদস্য হয়ে গেছে।সময়ের সঙ্গে কালো কুকুরটির সাথে সংখ্য গড়ে ওঠে বানরটির।

আলোচিত বন্ধু জুটির সাথে রয়েছে গৃহপালিত ২০-২৫টি মুরগিও। বাড়ির সদস্য জুয়েল ও সোহেল জানান, বানর, কুকুর ও গৃহপালিত মোরগগুলো সারাদিন একসঙ্গে পুরো বাড়ি চষে বেড়ায়। বিস্কুট, ভাতসহ নানান খাবার খায় ভাগাভাগি করে।

হারুণ অর রশিদ বলেন, কুকুর-বানরের এমন বন্ধুত্ব কখনো দেখিনি। বানরটি কুড়িয়ে আনার ৬-৭ মাসের মধ্যে কুকুরের সাথে যে সখ্য গড়ে উঠেছে, তা মানুষের বন্ধুত্বকেও হার মানিয়েছে।

Share