তবে কী ভারতকে ছাড়াই হচ্ছে এশিয়া কাপ!

২০২১ সালের এশিয়া কাপ থেকে শেষ পর্যন্ত নিজেদের সরিয়ে নিতে পারে ভারত। এশিয়া কাপে অংশ না নিয়ে করোনায় পিছিয়ে যাওয়া আইসিসি বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপ ও দ্বিপক্ষীয় সিরিজের দিকেই বেশি মনোযোগী হওয়ার কথা ভাবছে ভারত।

বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালের লড়াইয়ে অনেকটাই এগিয়ে ভারত। তাই চলতি বছরের জুনের মাঝামাঝি লর্ডসে এ ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে। অন্যদিকে এই বছরের জুনে এশিয়া কাপের আসর বসবে শ্রীলঙ্কায়।

ভারতীয় গণমাধ্যম টাইমস অব ইন্ডিয়ার খবর অনুযায়ী জুন মাসে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে এশিয়া কাপ। একই মাসের মধ্যবর্তী সময়ে রয়েছে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনাল। আর সেক্ষেত্রে বিশ্ব টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপকে গুরুত্ব দিচ্ছে ভারত। তাই ২০২১ সালের এশিয়া কাপে ভারতের অংশ নেওয়ার ব্যাপারে আগ্রহী নয় বিসিসিআই।

করোনার কারণে পিছিয়ে যাওয়া এশিয়া কাপ ২০২০ এর ভেন্যু ছিল পাকিস্তানে। পরে আইপিএলের জন্য টুর্নামেন্ট থেকে সরে গিয়েছিলো ভারত। তবে সেটা যে শুধু আইপিএল ছিল না সেটা ঠিকই বুঝেছে ক্রিকেট বিশ্ব। তাই এশিয়া কাপের দায়িত্ব চলে যায় ২০২১ সালের আয়োজনের দায়িত্ব পায় শ্রীলঙ্কা।

২০২২ সালের এশিয়া কাপ আয়োজনের দায়িত্ব দেয়া হয় পাকিস্তানকে। এমনই সিদ্ধান্ত নিয়েছে এশিয়ান ক্রিকেট কাউন্সিল। আর ২০২০ সালের স্থগিত হয়ে যাওয়া টুর্নামেন্টটি হবে যথারীতি শ্রীলংকাতেই। এমন সিদ্ধান্তের পরও এশিয়া কাপে অংশগ্রহণে অনীহা প্রকাশ করে যাচ্ছে ভারত।