সারাদিনের কাজের ফাঁকে এই পাঁচটি খাবার খেলে ওজন বাড়বে না

করোনার কারণে ‘ওয়ার্ক ফ্রম হোম’ এখন জনপ্রিয় হয়ে উঠেছে। এখনও অনেকে বাড়ি থেকে অফিসের কাজ করছেন। আর বাড়িতে থেকে অফিস করার কারণে সারাদিনে খাওয়ার পরিমাণও বেড়েছে।

যখন যেটা হাতের কাছে পাওয়া যাচ্ছে সেইটা খাচ্ছে সবাই। এতে করে মুটিয়ে যাওয়ার পাশাপাশি শরীরেও বিভিন্ন সমস্যা দেখা দিচ্ছে।

ন্যাশনাল লাইব্রেরি অফ মেডিসিনের গবেষণায় দেখা গেছে যে, ফাইবার এবং প্রোটিনের পরিমাণ বেশি আছে এমন পুষ্টিকর খাবারের স্ন্যাক্সস আপনাকে অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখতে সাহায্য করে। এতে করে কাজের শক্তি যোগায় এবং এতে ক্যালোরির পরিমাণও কম থাকে।

আর তাই সারাদিনের কাজের ফাঁকে এই পাঁচটি খাবার খেলে একদিকে যেমন পেট ভরা থাকবে অনেকক্ষণ তেমনই শরীরে আলাদা ফ্যাটযুক্ত হবে না।

বাদাম ও ড্রাই ফ্রুটস:

বাদাম ও ড্রাই ফ্রুটসে কার্বহাইড্রেট, ফ্যাট ও প্রোটিন খুব ভালো পরিমাণে রয়েছে। বাদাম ও ড্রাই ফ্রুটসে যে ফাইবার রয়েছে তা অনেকক্ষণ পেট ভরিয়ে রাখতে সাহায্য করে।

ছোলা:

এই খাবারে প্রোটিন, ফাইবার এবং বেশ কয়েকটি ভিটামিন এবং খনিজ রয়েছে। আধা কাপ ছোলাতে ৫ গ্রাম ফাইবার এবং ১০ গ্রাম প্রোটিন রয়েছে।

এছাড়া ছোলাতে প্রয়োজনীয় অ্যামিনো অ্যাসিড এবং উচ্চ মানের প্রোটিন রয়েছে যা একদিকে পেটও ভরা রাখবে আর ওজন কমাতেও সাহায্য করবে।

আপেল ও পিনাট বাটার:

এটি প্রোটিন এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাট সমন্বয়ে একটি সুস্বাদু খাবার। আপেলে ফাইবার এবং পানির পরিমাণ বেশি। অন্যদিকে পিনাটবাটার শর্করা, শরীরের উপকারী ফ্যাট ও প্রোটিনের উৎস।

ওটস ও গ্র্যানোলা:

ওটস এবং গ্র্যানোলা বার আপনাকে ভিটামিন, খনিজ এবং অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সরবরাহ করবে। এছাড়া ওজন কমাতেও সাহায্য করে। হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় এই খাবার। সেই সাথে পেট অনেকক্ষণ ভরা থাকে।

পপকর্ন:

পপকর্নে ফাইবারের পরিমাণ বেশি এবং ক্যালোরির পরিমাণ কম। ১৬ গ্রাম পপকর্নে ৬২ ক্যালোরি, ১২ গ্রাম কার্ব, ২ গ্রাম ফাইবার এবং ভিটামিন ও মিনারেল রয়েছে। এই পপকর্ন হৃদরোগের ঝুঁকি কমায় এবং সেই সাথে ওজন কমাতেও সাহায্য করে।