আবারো নতুন করে পেছাল এইচিএসসির ফল প্রকাশ, উদ্বিগ্ন শিক্ষার্থীরা

“এইচএসসি সমমানের ফলাফল নিয়ে উদ্বেগে রয়েছেন শিক্ষার্থীরা। কাঙ্ক্ষিত ফল পাবেন কিনা বা কবে ফলাফল প্রকাশ করা হবে তা নিয়ে অনেকে দুশ্চিন্তার মধ্যে দিন পার করছেন।

যদিও ইতোমধ্যে অটোপাসের ফল তৈরির গেজেট প্রকাশ করেছে সরকার।”

এখন শিক্ষাবোর্ডগুলোকে ফল তৈরির কাজ শেষ করতে নির্দেশ দেয়া হবে। ফলাফল প্রকাশে আগামী ২৯ জানুয়ারি থেকে ৩ ফেব্রুয়ারির মধ্যে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সম্মতি চাওয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী যেদিন সময় দেবেন সেদিন এ ফল প্রকাশ করা হবে বলে জানা গেছে।

এর আগে গত ১১ জানুয়ারি মন্ত্রিপরিষদ সচিব খন্দকার আনোয়ারুল ইসলাম জানিয়েছিলেন, এইচএসসি বা সমমান পরীক্ষার ফলাফল ২৮ জানুয়ারির (বুধবার) মধ্যে প্রকাশ করা হবে। এদিকে, সোমবার (২৫ জানুয়ারি) পরীক্ষা ছাড়াই এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করতে সংসদে পাস হওয়া তিনটি সংশোধিত আইনের গেজেট জারি করা হয়েছে।

এর আগে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ তিনটি বিলে সম্মতি দেন। বিল তিনটিতে রাষ্ট্রপতির সম্মতির পর সেগুলো আইনে পরিণত হয়। ‘ইন্টারমিডিয়েট অ্যান্ড সেকেন্ডারি এডুকেশন (অ্যামেন্ডমেন্ট) আইন-২০২১’, ‘বাংলাদেশ কারিগরি শিক্ষাবোর্ড (সংশোধন) আইন-২০২১’ ও ‘বাংলাদেশ মাদরাসা শিক্ষাবোর্ড (সংশোধন) আইন-২০২১’- এর গেজেট জারি করা হয়।

এখন যেকোনো দিন এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল প্রকাশ করা হবে। এসএসসি ও জেএসসির পরীক্ষার ফলের ভিত্তিতে এইচএসসি পরীক্ষার ফলাফল দিতে এ আইনগুলো পাস করা হয়। রোববার (২৪ জানুয়ারি) সংসদে বিল তিনটি পাসের পর শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি বলেন,

‘বিল পাসের পর প্রজ্ঞাপন দিতে দুদিন সময় লাগবে। এরপরই আমরা দ্রুত ফলাফল প্রকাশ করব।’ আগের আইন অনুযায়ী পরীক্ষা নেয়ার পর এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষার ফল দেয়ার বিধান রয়েছে। কিন্তু সংশোধিত আইনে পরীক্ষা ছাড়াই বিশেষ পরিস্থিতিতে ফলাফল প্রকাশের বিধান রাখা হয়েছে।