শারীরিক সম্পর্কে রাজি নয় ৬ষ্ঠ স্ত্রী, সপ্তম স্ত্রীর খোঁজে ৬৩ বছরের বৃদ্ধ

স্ত্রী শারীরিক সম্পর্কে রাজি নয়। সেই জন্য ৬৩ বছরের বৃদ্ধ আবারও বিয়ে করতে চলেছেন! শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি।

অবাক হওয়ার মতো বিষয় হলো, এটি ওই ব্যক্তির দ্বিতীয় বিয়ে নয়, সপ্তম বিয়ে। এই বৃদ্ধ ভারতের গুজরাট রাজ্যের সুরাটের বাসিন্দা।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, আয়ুব দেগিয়া নামে ওই চাষি সুরাটের গ্রামে থাকেন। গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসেই ষষ্ঠ বিয়ে করেন। তাও আবার নিজের থেকে ২১ বছরের ছোট একটি মেয়েকে। যদিও ডিসেম্বর মাসেই আলাদা হয়ে যান। কারণ হিসেবে জানান, স্ত্রী তার সঙ্গে যৌন সম্পর্কে রাজি হন না, তাই এই সিদ্ধান্ত।

ভারতীয় একটি গণমাধ্যমে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি জানান, আমার ডায়বেটিস, হৃদরোগসহ অন্যান্য সমস্যা রয়েছে। কিন্তু আমার স্ত্রী ইনফেকশনের দোহাই দিয়ে কখনই যৌন সঙ্গমে রাজি হতো না। তাই স্ত্রীকে ছেড়ে দেওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।

ওই ব্যক্তির প্রথম স্ত্রী এখনও জীবিত। তিনি একই গ্রামেই থাকেন। তাদের পাঁচ সন্তান রয়েছে। প্রত্যেকেরই বয়স ২০ থেকে ৩৫ বছরের মধ্যে। কিন্তু ষষ্ঠ স্ত্রীকে ডিভোর্স দিলেও এখন আর প্রথম জনের কাছে যান না আয়ুব।

আয়ুবের ষষ্ঠ স্ত্রী প্রথমে তার এই কুকীর্তির কথা জানতেন না। কিছু না জেনেই বিয়ে সেরে ফেলেছিলেন। বর্তমানে সবকিছু জানার পর পুলিশে অভিযোগ দায়ের করেন।

এই প্রসঙ্গে ওই নারীর আইনজীবী জানান, তার মক্কেল বিধবা। সেটারই সুযোগ নেয় আয়ুব। ওই মহিলার খেয়াল রাখা, সাহায্য করা, পাশে থাকার কথা বলে বিয়েও সেরে ফেলেন। কিন্তু কিছুদিন পরই তার আসল স্বরূপ বেরিয়ে আসে।

এমনকি স্ত্রীকে বোনের বাড়িতে রেখে আসেন। এরপরই স্বামীর আসল পরিচয় জানতে পারেন ওই মহিলা।