এইচএসসিতে ফরম পূরণের কত টাকা ফেরত পাবে শিক্ষার্থীরা

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষার ফরম পূরণে ফি বাবদ নেয়া টাকা শিক্ষার্থীদের ফেরত দেয়ার দির্শেদ দেয়া হয়েছে। জানা গেছে, শিক্ষা বোর্ডগুলো টাকা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে ফেরত দেবে, আর শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান শিক্ষার্থীদের এ টাকা দেবে।

করোনার কারণে না হওয়া এইচএসসির সদ্য অটোপাস শিক্ষার্থীরা কোন পলিসিতে ফরম পূরণের টাকা ফেরত পাবে তা নিয়ে ব্যাখ্যা দিয়েছে মাধ্যমিক ও উচ্চমাধধ্যমিক শিক্ষা বোর্ড, ঢাকা। রোববার (৩১ জানুয়ারি) ঢাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে পরীক্ষার্থীদের টাকা ফেরত দেয়ার নির্দেশনা দিয়ে বিজ্ঞপ্তি জারি করা হয়েছে।

জানা গেছে, পরীক্ষার্থীদের উত্তরপত্র মূল্যায়ন বাবদ নেয়া টাকা এবং ব্যবহারিক ও কেন্দ্র ফি বাবদ নেয়া টাকার একটি অংশ আন্তঃশিক্ষা বোর্ড পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক উপ-কমিটির সভায় ফেরত দেয়ার সিদ্ধান্ত নেয়া হয়েছে।

আদেশে বলা হয়েছে, যে সকল পরীক্ষার্থী পরীক্ষার ফরম পূরণ করেছিল তাদের প্রতি পত্রের জন্য বোর্ড নির্ধারিত ফি থেকে পত্র প্রতি ৩০ টাকা করে এবং ব্যবহারিক বিষয়ের ক্ষেত্রে পত্র প্রতি আরও ১০ টাকা শিক্ষা বোর্ড থেকে ফেরত দেয়া হবে। বোর্ড এ টাকা শিক্ষার্থীদের নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানে পাঠাবে। পরীক্ষার্থীরা প্রতিষ্ঠান থেকে এ টাকা গ্রহণ করবে।

এছাড়া পরীক্ষার্থী প্রতি ২০০ টাকা করে এবং আইসিটি বিষয়ক পরীক্ষার্থীদের অতিরিক্ত আরও ২৫ টাকা কেন্দ্র থেকে শিক্ষার্থীদের ফেরত দেয়া হবে। আইসিটি বিষয়ের পরীক্ষার্থীদের ২৫ টাকা করে ফেরত দেয়া হবে। আর আইসিটি ছাড়া অন্যান্য ব্যবহারিক বিষয়ের ক্ষেত্রে পত্র প্রতি অতিরিক্ত ৪৫ টাকা করে ফেরত দেয়া হবে। পরীক্ষার্থী কেন্দ্র ফি বাবদ ব্যয় না হওয়া টাকা প্রতিষ্ঠান থেকে গ্রহণ করবে।

বোর্ড আরও জানিয়েছে, সংশ্লিষ্ট শিক্ষা প্রতিষ্ঠান ফরম পূরণ বাবদ আদায় করা টাকার ১০ শতাংশ এবং আইসিটি ব্যবহারিক বিষয়ের জন্য আদায় করা ফি থেকে পরীক্ষার্থী প্রতি ২০ টাকা ফরম পূরণ ও আনুষঙ্গিক কাজের জন্য ব্যয় নির্বাহ করবে।

এইচএসসি ও সমমান পরীক্ষায় প্রতিটি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান পরীক্ষার্থী প্রতি সংশ্লিষ্ট কেন্দ্রকে ১৬০ টাকা হারে দেবে। এ টাকা পরীক্ষার গোপনীয় কাগজ পরিবহন ও বোর্ডে জমাদান, সংরক্ষণ এবং প্রশাসনিক ব্যয় নির্বাহ হবে।