পার্লারে গিয়ে পুড়লো নারীর সুন্দর মুখ, নিজেই জানালেন ভয়াবহ সেই অভিজ্ঞতা

যেকোনো অনুষ্ঠানেই নারীরা নিজেকে সুন্দরভাবে সাজানোর প্রতিযোগিতায় নামে। অনুষ্ঠান উপলক্ষে তারা পার্লারে ঘণ্টার পর ঘণ্টা কাটিয়ে দেন রুপচর্চায়।

সম্প্রতি এই রুপচর্চাই কাল হল বিনীতা নাথের।
ভারতের গুয়াহাটির বিনীতা নাথ ইতালি-র ইউনিভার্সিটি অফ রোমে পোস্ট ডক্টরেট করছেন। নিজের বাড়ি ফিরে শিলচরের সারদা পার্লারে গিয়েছিলেন নিয়ম করেই।

নিজের ফেসবুকের একটি পোস্টে বিনীতা জানান, তিনি খুব বেশি পার্লারে যান না। একটি বিয়ের অনুষ্ঠানে যোগ দেয়ার জন্যই পার্লারে যাওয়া।

তিনি বলেন, আমি কখনই থ্রেডিং করিনি কখনই মুখের চুল তুলিনি। আমি সেখানে যেয়ে বলি একটা ফেসিয়াল করবো। তারা বলে আমার মুখে কিছু চুল রয়েছে আমি যদি থ্রেডিং বা ওয়াক্সিং না করলে যেন ব্লিচ করি। আমিও রাজি হয়ে যাই।

তিনি আরো বলেন, ফেসিয়ালের পর ব্লিচ করানো হয়। তখন মনে হল কেউ যেন ফুটন্ত তেল আমার মুখে ঢেলে দিল! সঙ্গে সঙ্গেই আমার মুখে জ্বালা শুরু হয়! আমি যন্ত্রণায় চিৎকার করে উঠি, ওরা সঙ্গে সঙ্গে সেই লেয়ারটা আমার মুখ থেকে সরিয়ে নেয়। তারপর আমার মুখে আইসব্যাগ দেয়া হয়, কিন্তু ততক্ষণে অনেক দেরি হয়ে গিয়েছিল। এরপরে আমার মুখে একাধিক পোড়া দাগ হয়ে যায়! দাগ ও ক্ষত এতটাই গভীর ছিল যে চিকিৎসকদের কাছে যেতে হয়।

নাথ জানান, চিকিৎসকরা জানিয়েছেন এগুলো সব পোড়ার দাগ। ওষুধ দিয়েছেন তবে বেশ কিছুটা সময় লাগবে এটা সারতে।

অভিযুক্ত পার্লারের যুগ্ম কর্নধার জানিয়েছেন তিনি নিজেও বিস্মিত এবং ক্ষমাপ্রার্থী ৷ তিনি বলেছেন, আমার বাবা শয্যাশায়ী তাই আমি বা আমার স্ত্রী সেদিন পার্লারে ছিলাম না। যে অনভিপ্রেত ঘটনাটি ঘটেছে তার জন্য আমরা গভীর কষ্ট পাচ্ছি ৷ কিছু একটা ভীষণ ভুল হয়েছে আমার মনে হচ্ছে খালি যদি আমি সেটা আটকাতে পারতাম।