আজানের সুরে অনুপ্রা’ণিত হয়ে মা’র্কিন সংগীতশিল্পীর ইসলাম গ্রহণ!

জেনিফার গ্রাউত একজন মা’র্কিন সংগীতশিল্পী। তিনি ২০১৩ সালে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করেন। তবে আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেন ২০১৫ সালে, ইউটিউবে কোরআন তিলাওয়াতের একটি ভিডিও প্রকাশের মাধ্যমে।

ডিসেম্বর ২০১৯ সালে নওমু’সলিম তরুণ এই সংগীতশিল্পী আলজাজিরা আরবির স’ঙ্গে তাঁর ইসলাম গ্রহণ, পারিবারিক জীবন ও নানা বি’ষয় নিয়ে কথা বলেন।প্রশ্ন: প্রথমেই আপনার ইসলাম ধর্ম গ্রহণ সম্প’র্কে জানতে চাই, আপনি ২০১৩ সালে ইসলাম গ্রহণ করেছেন। কিসের প্রভাবে আপনি ইসলাম ধর্মের প্রতি আকৃ’ষ্ট হয়েছেন?

উত্তর : আমি দৃঢ়ভাবে বিশ্বাস করি, ইসলাম ধর্ম গ্রহণের ব্যাপারে আমাকে সবচেয়ে বেশি প্রভাবিত করে মু’সলমানের জীবনপ্রণালী, যা একটি মু’সলিম দেশে সফর করার সময় দেখেছিলাম। ২০১২ সালে বিশ্ববিদ্যালয়ের পড়ালেখা শেষ করার পর আমি মরক্কো সফরে যাই।গ্রীষ্মের ছুটি কা’টাতে সেখানে গিয়েছিলাম। পুরো গ্রীষ্মে মরক্কোয় ছিলাম। তখন যে বি’ষয়টি আমাকে প্রথম আকর্ষণ করে তা হলো আজানের ধ্বনি। যেখানেই যেতাম পাঁচ ওয়াক্ত নামাজের আজান শুনতে পেতাম।

আমি জানতে পারলাম, আজানের মাধ্যমে সবাইকে নামাজের প্রতি আহ্বান জানানো হয়। বি’ষয়টি আমাকে পুলকিত করে। সত্যি বলতে আজানের সুরই আমাকে প্রথম ইসলাম গ্রহণে অনুপ্রা’ণিত করে।তিনি বলেন, তা ছাড়া অন্যের প্রতি মরক্কোর মানুষের সম্মানবোধও আমাকে স্পর্শ করে।

আমি অনুভব করি, এখানকার পরিবেশ ও প্রকৃতির আলাদা বৈশিষ্ট্য রয়েছে। মু’সলিম’দের রীতি-নীতির সম্প’র্কে জানার প্রচণ্ড আ’গ্রহ জ’ন্মাল আমার ভে’তর। ইসলাম ও মু’সলমান সম্প’র্কে পড়তে শুরু করলাম। কিছু পড়ার পর ইসলামের সৌন্দর্য আমাকে বিস্মিত করল। ধীরে ধীরে ইসলামের দিকে ঝুঁকে গেলাম এবং একপর্যায়ে ইসলাম গ্রহণ করলাম।