রান তাড়া করতে নেমে সৌম্যর বিদায়

অতি সম্প্রতি গোস্ত চুরির আতঙ্কে ঘুম হারাম হয়ে গেছে মানিকগঞ্জ জেলার শিবালয় উপজেলা ও ঘিওর উপজেলাসহ জেলায় গরু পালনকারী খামারি ও সাধারণ গরুর মালিকদের।

জানা গেছে, সংঘবদ্ধ একটি চক্র গত প্রায় দেড়-দুই মাস যাবত গরু চুরি করে এনে খোলা ফসলের মাঠে রাতের বেলায় গরু জবাই করে গোস্ত নিয়ে যাচ্ছে আর ফেলে রেখে যাচ্ছে চামড়া, মাথা ও ভুড়ি। গত শুক্রবার ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের শিবালয় উপজেলার ফলসাটিয়া বাসস্ট্যান্ডের ঠিক উত্তর পাশে সরিষা ক্ষেতে একটি রক্তাক্ত গরুর মাথা, চামড়া ও ভুড়ি পাওয়া যায়। এলাকার লোকজন ভোরবেলা মাঠের কাজে বের হলে এ দৃশ্য দেখতে পায়। সকাল বেলা খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে উপস্থিত অনেকের সাথেই কথা হয়।

সেখানে উপস্থিত একই গ্রামের মো: ফজর আলী বলেন, যারা এত অল্প সময়ে পুরো একটা গরু কেটে নিয়ে যেতে পারে তারা অবশ্যই একটি সংঘবদ্ধ দল হবে। এরা অবশ্যই সশস্ত্র এবং কেউ এগিয়ে এলে তারা তাকেও হত্যা করতে পারতো। তিনি বলেন, গোস্ত ব্যবসায়ী ও কসাইদের সাথে এদের যোগাযোগ আছে বলে মনে হয়।

ঘিওর উপজেলার বড়টিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: সাইদুর রহমান সাইদ বলেন, গত দেড় মাস আগে আমাদের ইউনিয়নের করজনা কাপালীপাড়া উত্তার চকে একটি গরু জবাই করে গোস্ত নিয়ে গেছে এবং মাথাসহ চামড়া ফেলে রেখে গেছে। গরুটি ছিল করজনা গ্রামের তারামিয়ার। এর পর থেকেই এলাকায় আতঙ্ক বিরাজ করছে। গরুর মালিক ও কিছু গরুর খামারির রাতে ঘুম হারাম হয়ে গেছে।

এ ব্যাপারে শিবালয় থানার ওসি ফিরোজ কবীরের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, ফলসাটিয়ার ঘটনাটি আমি শুনেছি। বিষয়টি একেবারে নতুন তবে আমরা এ চক্রকে ধরবো ইনশাল্লাহ।