নাসিরের স্ত্রীর বিয়ে হয়েছে আগেও, আছে আট বছরের মেয়েও!

জীবনের গুরুত্বপূর্ণ দিনটি স্মরণীয় করে রাখতে ভালোবাসা দিবসে বিয়ে করেন টাইগার ক্রিকেটার নাসির হোসেন।

জানা গেছে, নাসিরের সহধ’র্মিণীর নাম তামিমা তাম্মি। গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইল। পেশায় বিমানের কেবিন ক্রু। কাজ করেন সৌদি এয়ারলাইন্সে। পারিবারিকভাবেই তাম্মির সঙ্গে গাঁটছড়া বাঁধেন নাসির।

গত ১৪ ফেব্রুয়ারি উত্তরার একটি রেস্তোরাঁয় স্বল্প পরিসরে পরিবারের ঘনিষ্ঠজনদের নিয়ে আকদ সম্পন্ন করেন তিনি।

এদিকে বিয়ের পাঁচদিনের মাথায় শোনা গেল অবাক করা কাহিনী। আগের স্বামীকে তালাক না দিয়েই নাসিরের সঙ্গে বিয়ের পিঁড়িতে বসেন তামিমা। সেই সঙ্গে ঘরে রয়েছে আট বছরের মেয়ে।

শনিবার দুপুরে রাইসা ইসলাম বাবুনি নামক এক ফেসবুক ব্যবহারকারীর একটি পোস্ট ভাইরাল হয়। যেখানে তামিমার স্বামী রাকিবের পক্ষে দাবি করা হয়েছে, এখনও তাদের মধ্যে বৈবাহিক সম্পর্ক রয়েছে। তাদের ঘরে রয়েছে ৮ বছর বয়সী একটি মেয়ে সন্তানও। তালাক না দিয়ে নতুন বিয়ে করায় তামিমার বিরুদ্ধে থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন রাকিব।

ফেসবুকে ভাইরাল হওয়া ওই পোস্টে রাকিবের সঙ্গে নাসিরের একটি অডিও কলও রয়েছে। যেখানে নাসির রাকিবকে ফোন দিয়ে জানতে চান কেনো তিনি জিডি করেছেন।

রাকিবের কথায়, ২০১১ সালে রাকিবের সঙ্গে তামিমার বিয়ে হয়। বর্তমানে সৌদিয়া এয়ার লাইন্সের কেবিন ক্রু হিসেবে কর্মরত রয়েছেন তিনি।

উল্লেখ্য, জাতীয় দলে নাসির হোসেন অনিয়মিত হয়েছেন অনেক আগেই। ঘরোয়া ক্রিকেটে নিয়মিত খেললেও অতটা সুবিধা করতে পারছেন না।

সম্প্রতি হয়ে যাওয়া বঙ্গবন্ধু টি-২০ লিগেও দল পাননি এ অলরাউন্ডার। বাংলাদেশ জাতীয় দলের হয়ে ১৯টি টেস্ট, ৬৫টি ওয়ানডে ও ৩১টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলা নাসির সম্প্রতি খেলে এসেছেন আবুধাবি টি-টেন লিগে, যেখানে নেতৃত্ব দিয়েছেন পুনে ডেভিলস দলকে।

জাতীয় দলের একসময়ের নিয়মিত মুখ ছিলেন ‘ব্যাডবয়’ খ্যাত নাসির হোসেন। তার নারী ভক্ত-বান্ধবী নিয়ে নানা মুখরোচক গল্প আছে। নাসিরের একাধিক মোবাইল সিম ব্যবহার করা নিয়ে মন্তব্য করেছিলেন স্বয়ং বোর্ড সভাপতিও