টিকা নেননি ‘রিয়াদ-মুশফিক’সহ ৫ ক্রিকেটার

চলতি মাসের ২৩ তারিখেই নিউজিল্যান্ড সফরে যাবে বাংলাদেশ দল। সেই সফরের দলে যারা আছেন তাদের ভ্যাকসিন গ্রহণের ক্ষণ নির্ধারিত ছিল ১৮ ও ১৯ ফেব্রুয়ারি। তবে এই সময়ে ভ্যাকসিন নেননি এই দুই সিনিয়রসহ ৫ ক্রিকেটার।

দেশে নির্দিষ্ট বয়সের নাগরিকরা এই ভ্যাকসিন পেলেও অগ্রাধিকার বিবেচনায় টিকা গ্রহণের সুযোগ করে দেওয়া হয়েছিল ক্রিকেটারদের। যাদের মধ্যে অনেকেই এটা গ্রহণ করলেও এখনও নেননি পাঁচ ক্রিকেটার।

ভ্যাকসিন না নেওয়া ক্রিকেটাররা হলেন, টি-টোয়েন্টি অধিনায়ক মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, মুশফিকুর রহিম, লিটন দাস, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত ও শেখ মেহেদী হাসান।

বোর্ড ও ক্রিকেটারদের ভ্যাকসিন গ্রহণ কর্মসূচি শেষে গণমাধ্যমের সাথে আলাপকালে বিসিবির প্রধান নির্বাহী নিজামউদ্দিন চৌধুরী সুজন এই তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, আগেও বলেছি, আমরা মনে করি এটা একটা ভালো সুযোগ। সরকার আমাদের যে সুযোগ করে দিয়েছে তা আমাদের সবারই গ্রহণ করা জরুরি। ভ্যাকসিন নিলেই যে শতভাগ নিরাপদ থাকবেন তা না, তবে এক ধাপ এগিয়ে গেলাম। পরবর্তীতে স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে হয়ত আমরা একটা নির্দিষ্ট পর্যায় পর্যন্ত নিরাপদ থাকতে পারব।

তিনি আরও বলেন, এই বিষয়টি অনুধাবন করে অনেকেই ভ্যাকসিনেশন পর্যায়ের আওতায় ভ্যাকসিন নিয়েছেন। নিউজিল্যান্ড সফরের অধিকাংশ ক্রিকেটার ভ্যাকসিন নিয়েছেন।

তবে এই ভ্যাকসিন গ্রহণে অনেক দেশেই প্রকট পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া দেখা গেছে। যে কারণে আতঙ্ক কাজ করছে কারও কারও মধ্যে। বাংলাদেশে অবশ্য মৃদু পার্শ্বপ্রতিক্রিয়াই দেখা যাচ্ছে, এখন পর্যন্ত দীর্ঘস্থায়ী শারীরিক জটিলতায় ভুগতে হয়নি কাউকে। তবুও ভ্যাকসিন গ্রহণ নিয়ে কারও কারও মনে আতঙ্ক বিরাজ করছে। যদিও টিকা না নেওয়া প্রসঙ্গে এখনও কোনও কারণ উল্লেখ করেননি দুই ভায়রাসহ ওই পাঁচ ক্রিকেটারের কেউই।