পায়ে আলতা পরনে বোরকা, খুলতেই চোখ ছানাবড়া পুলিশের!

পরনে বোরকা। পায়ে লাগানো আলতা, মেয়েদের জুতা। বোরকা খুলতেই চোখ ছানাবড়া পুলিশের। এতো দাড়িওয়ালা যুবক! বোরকা পরেও রক্ষা পেলেন না মাদক কারবারি ইমরান (২৫)।

বুধবার (১৭ মার্চ) সকালে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার খাঁটিহাতা বিশ্বরোড মোড় থেকে ফেনসিডিলসহ তাকে আটক করে পুলিশ। এসয় তার সাথে থাকা মো. সবুজ (২০) নামে আরও এক যুবককে আটক করা হয়।

হাইওয়ে পুলিশ তল্লাশি করে ইমরানের শরীরে বিশেষ কায়দায় রাখা ৪৩ বোতল ও ব্যাগে রাখা ৩৬ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করা হয়। এ সময় মো. সবুজ মিয়া নামে ইমরানের এক সহযোগীকেও আটক করা হয়।

ইমরান মিয়া নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জের মোড়াপাড়ার জুয়েল মিয়ার ছেলে ও মো. সবুজ একই এলাকার মো. শরীফ মিয়ার ছেলে। তারা মাদক পাচারকারি দলের সদস্য বলে নিশ্চিত করেছে পুলিশ।

বিশ্বরোড খাঁটিহাতা হাইওয়ে থানার ওসি গাজী মো. সাখাওয়াত হোসেন জানান, বুধবার সকালে জেলার খাঁটিহাতা বিশ্বরোড মোড়ে ঢাকা-সিলেট মহাসড়কের পাশে ইকোনো বাস কাউন্টারে সামনে বোরকা পরা এক নারী ও এক যুবক ব্যাগসহ বাসের জন্য অপেক্ষা করছিলেন। তাদের কাছে মাদক থাকার গোপন সংবাদে পুলিশ তল্লাশি করে। এক পর্যায়ে বোরকা পরা নারীর মুখ খুললেই দেখা যায় দাড়িওয়ালা যুবক। এ ছাড়া বোরকা পরা ইমরানের পায়ে আলতা, মেয়েদের জুতা পরাও ছিল। এ ঘটনায় মামলা দায়ের কর হয়েছে।