রাজশাহীতে মেয়েকে ধর্ষণের দায়ে বাবার মৃত্যুদণ্ড

বাবা এমন এক শব্দ যা আমাদের মনকে ব্যাকুল করে ঈশ্বরের সমতুল্য জায়গা করে নেয় । কিন্তু এ যেন আজব দেশে বসবাস করছি আমরা। যেখানে বাবার কাছে মেয়ে নিরাপদ নয়!

শুনে অবাক মনে হলেও সত্যি। রাজশাহীতে মেয়েকে ধ’র্ষণের দায়ে নজরুল ইসলাম ওরফে নজরুল কসাই (৫০) নামে এক ব্যক্তির ফাঁসির আদেশ দিয়েছেন আদালত। একইসঙ্গে তাকে এক লাখ টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (২২ মার্চ) দুপুরে রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর বিচারক মনসুর আলম এ রায় ঘোষণা করেন।

দণ্ডপ্রাপ্ত নজরুল রাজশাহী মহানগরীর বাজেসিলিন্দা মহল্লার মৃত খবির উদ্দিনের ছেলে।

রাজশাহীর নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল-১ এর রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবী রাশেদ-উন-নবী এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

রাশেদ-উন-নবী জানান, ২০১৮ সালের ১৪ মে ভোরে মেয়ের মা রান্নার কাজে ছাত্রাবাসে গেলে ঘুমন্ত নাবালিকা মেয়েকে (১৪) ধ’র্ষণ করেন নজরুল। এ ঘটনাটি কাউকে জানালে তার মাকে জবাই করে হত্যা করা হবে বলেও মেয়েকে হুমকি দেওয়া হয়। পরে বিষয়টি জানতে পেরে ২০১৯ সালের ১৫ ফেব্রুয়ারি নজরুলের স্ত্রী নার্গিস বেগম বাদী হয়ে স্বামীর বিরুদ্ধে থানায় মামলা করেন। এরপর পুলিশ তাকে গ্রেপ্তার করে। পরবর্তীতে আদালতে মামলার বিচার শুরু হয়। বিচার চলাকালে নজরুলের বিরুদ্ধে অভিযোগ প্রমাণিত হওয়ায় আদালত তাকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন। রায় ঘোষণার সময় আসামিকে আদালতের কাঠগড়ায় উপস্থিত করা হয়েছিল। রায় ঘোষণার পর তাকে রাজশাহী কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠানো হয়। রায় ঘোষণার সময় আসামির কোনো আইনজীবী আদালতে উপস্থিত ছিলেন না।

উল্লেখ্য, রায় ঘোষণার পর ট্রাইব্যুনালের সরকারি কৌঁসুলি (পিপি) রাশেদ উন নবী সাংবাদিকদের বলেন, এই মামলার আসামি ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছেন। কিশোরী ২২ ধারায় জবানবন্দি দিয়েছে। ১১ জন সাক্ষীর সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। এই মামলার সমর্থনে চিকিৎসা সনদ পাওয়া গেছে।