চোরকে চাকরি দিতে চান রেস্তোরাঁর মালিক

চোরকে চাকরি দিতে চান এক রেস্তোরাঁর মালিক। নিজের প্রতিষ্ঠানে চুরি করতে আসা চোরকে তিনি ক্ষমা করে দিয়েছেন। জর্জিয়ার ডায়াবলো’স সাউথওয়েস্ট গ্রিল রেস্তোরাঁর মালিক এই অনন্য নজির স্থাপন করেছেন।

সাধারণত চোর ধরা পড়লে লোকে কী করে! হয় নিজেরা সামান্য উত্তম-মধ্যম দেয়, নাহলে সরাসরি পুলিশের হাতে তুলে দেয়। কিন্তু জর্জিয়ার ডায়াবলো’স সাউথওয়েস্ট গ্রিল রেস্তোরাঁর মালিক অন্য ধাতুতে গড়া। নিজের প্রতিষ্ঠানে চুরি করতে আসা ব্যক্তিকে তিনি ক্ষমা তো করেছেনই, সাথে তাকে কাজ জুটিয়ে দেবার আবেদন করে অনন্য নজির স্থাপন করেছেন।

খাবারের দোকানটির ভাঙা দরজার ছবি দিয়ে কার্ল ওয়ালেস ফেসবুক পোস্টে লিখেছেন, ‘কোন পুলিশকে ডাকা হবে না, কোন প্রশ্নও করা হবেনা। বরং আসুন আমরা বসে কথা বলি যে আপনাকে কীভাবে সাহায্য করা যায় এবং এ পথ থেকে ফিরিয়ে আনা যায়।’

যারা সামনের দিনগুলোতে চুরি বা ডাকাতির চিন্তাভাবনা করছেন, তাদেরকে চাকরির আবেদনপত্রসহ সাড়া দিতে আহবান জানান তিনি পোস্টে।

ওয়ালেস গত আট বছর যাবত ডায়াবলো’স সাউথওয়েস্ট গ্রিল চালাচ্ছেন। তিনি জানান, শনিবার ভোর ৪টার দিকে কেউ একজন দোকানে প্রবেশ করে। কিন্তু রেস্তোরাঁর এলার্ম বেজে ওঠায় ৪৫ সেকেন্ডের মাথায় সে বেরিয়ে আসতে বাধ্য হয়।

ওয়ালেস বলেন, প্রথমে স্বাভাবিকভাবেই তার অত্যন্ত রাগ এবং জেদ চেপে ছিল কিন্তু পরক্ষণেই তিনি লোকটির জন্য এক ধরণের দুঃখবোধ করতে থাকেন।

‘আপনার এটা ভেবে মন খারাপ হবে যে, এই মানুষগুলো বেঁচে থাকার দায়ে এমন পথ বেছে নিয়েছে। ভাবুন, প্রতিবার এসব কাজের সময় তারা নিজেদের কতটা ঝুঁকি এবং বিপদের মুখে ঠেলে দেয়।’

তার ধারণা, এই ব্যক্তি কাছাকাছি আরও দুটো খাবারের দোকানে সম্প্রতি চুরির চেষ্টা করেছে। সেখানকার সিসিটিভি ফুটেজে একই ব্যক্তির জড়িত থাকার প্রমাণ মিলেছে।

তাছাড়া বিশ্বজুড়ে এখন চলছে ইস্টারের ছুটি। এমন উৎসবের প্রাক্কালে এই ব্যক্তিকে ক্ষমা করে দেয়াটাই কার্ল ওয়ালেসের শ্রেয়তর মনে হয়েছে।

তিনি বলেন, ‘যে মানুষটি ইতিমধ্যে ভুল পথে চলতে শুরু করেছে আমি কেবল তাকে একটু সহযোগিতা এবং সঠিক দিকনির্দেশনা দিতে চেয়েছি।’

সূত্র: সিএনএন।