সেঞ্চুরি উদযাপন করলেন মুমিনুল, দেড়শতকে শান্ত

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে দুই ম্যাচের টেস্ট সিরিজের প্রথম টেস্টে দুর্দান্ত ব্যাট করেছে বাংলাদেশ। প্রথম দিন শেষে চালকের আসনে থেকে দ্বিতীয় দিন শুরু করে টাইগাররা।

এরই মাঝে দলের দ্বিতীয় ব্যাটার হিসেবে সেঞ্চুরি করেছেন মুমিনুল হক। দেশের বাইরে এটাই তার প্রথম সেঞ্চুরি।

এই রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশের সংগ্রহ ২ উইকেটে ৩৭৭ রান। শান্ত ১৫৪ ও অধিনায়ক মুমিনুল ১০৭ রান নিয়ে ব্যাট করছেন।

ধনঞ্জয় ডি সিলভাকে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে শতক পূরণ করেন মুমিনুল। ২২৪ বলে ক্যারিয়ারের একাদশতম শতক করেন তিনি। শতকের পথে ৯টি বাউন্ডারি হাঁকান টাইগারদের টেস্ট অধিনায়ক। একই সঙ্গ ১৫০ রানের মাইলফলক স্পর্শ করেছেন শান্ত।

দুই উইকেট হারিয়ে ৩০২ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিনের খেলা শুরু করে বাংলাদেশ। যেখান থেকে আগের দিন শেষ করেছিলেন, সেখান থেকেই যেন শুরু করে শান্ত-মুমিনুল জুটি। লংকান বোলারদের কোনো সুযোগই দিচ্ছেন না তারা। এরই মধ্যে দুজনের জুটির রান ২০০ ছাড়িয়েছে।

প্রথম দিন ৯০ ওভার শেষে তামিমের পর আর কোনো উইকেট না হারিয়ে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৩০২ রান। শান্ত ২৮৮ বল খেলে ১২৬ রানে এবং মোমিনুল ১৫০ বল খেলে ৬৪ রানে অপরাজিত থাকেন। অর্থাৎ তৃতীয় উইকেটে শান্ত-মোমিনুল জুটির সংগ্রহ ১৫০ রান।

এর আগে প্রথম দিন ব্যাট করতে নেমে ওপেনার সাইফ হাসান ৬ বলে মোকাবিলা করে কোন রান না করে ফার্নান্দোর বলে আউট হন। কিন্তু সাইফের আউট হওয়া নিয়ে স্বাগতিকদের উল্লাস মাটিয়ে মিশিয়ে দেন ড্যাশিং ওপেনার তামিম ইকবার। টেস্টকে ওয়ানডে স্টাইলে খেলে মাত্র ৫২ বলে ক্যারিয়ারের ২৯তম হাফসেঞ্চুরি তুলে নেন তামিম।

অপরপ্রান্তে সতর্ক-সাবধানী হয়ে খেলতে থাকেন নাজমুল হোসেন শান্ত। দ্বিতীয় উইকেটে ১৪৪ রানের দুর্দান্ত জুটি গড়েন তামিম-শান্ত। এ সময় ৯০ রানে অপরাজিত ছিলেন তামিম। আর শান্ত ১২৭ বলে পূরণ করেছিলেন তার ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় অর্ধশতক।

তামিমের সেঞ্চুরির অপেক্ষায় ছিল ক্রিকেটপ্রেমীরা। কিন্তু সবাইকে হতাশ করে দিয়ে নার্ভাস নাইনটিতে আউট হয়ে গেলেন তামিম। বিশ্ব ফার্নান্ডোর বলে লাহিরু থিরিমান্নের হাতে ক্যাচ তুলে দিয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন তামিম।

তামিম আউট হয়ে গেলে শান্তর সঙ্গী হন অধিনায়ক মোমিনুল হক। এবার মোমিনুলকে নিয়ে দুর্দান্ত জুটি গড়েন শান্ত। সিনিয়র সতীর্থ তামিমের ভুল থেকে মাঠেই শিক্ষা নিয়ে ঠিকই তিন অংকের ম্যাজিক ফিগারে পৌঁছে গেলেন শান্ত।

২৩৬ বলে শতক পূরণ করলেন শান্ত। টেস্ট ক্যারিয়ারে প্রথম সেঞ্চুরির মুখ দেখলেন এই টপঅর্ডার ব্যাটসম্যান। শান্তর শতকের পর পর হাফসেঞ্চুরির দেখা পান মোমিনুলও। ম্যাচের ৭৮তম ওভারে ১১৭ বলে অর্ধশতক পূরণ করেন তিনি। অপরাজিত থেকেই দিন শেষ করেছে শান্ত-মোমিনুল জুটি।

সোনালীনিউজ