পুরান ঢাকার আরমানিটোলায় ভয়াবহ অগ্নিকাণ্ড, নিহত ২

রাজধানীর পুরনো ঢাকায় আরমানিটোলায় ছয়তলা একটি ভবনে আগুনের ঘটনায় দুইজনের মৃত্যু হয়েছে। আহত হয়েছেন ফায়ার সার্ভিসের কর্মীসহ অন্তত ১৮ জন।

তাদেরকে বিভিন্ন হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে বলে উদ্ধারকারীরা জানিয়েছেন।

ফায়ার সার্ভিসের উপসহকারী পরিচালক হাফিজুর রহমান বলেন, নিহতের মধ্যে একজন নারী এবং একজন পুরুষ। নারী ঐ ভবনের বাসিন্দা এবং পুরুষটি ভবনের নিরাপত্তা কর্মী ছিলেন।

তিনি বলেন, আগুন লাগার খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসের ১৯টি ইউনিট সেখানে কাজ শুরু করছে। ভবনটির নিচতলায় রাসায়নিকের গুদাম রয়েছে। হাজী মুসা ম্যানসন নামে ঐ ভবনের নিচতলা থেকে শুক্রবার ভোর রাত সাড়ে তিনটা দিকে আগুনের সূত্রপাত হয়।

স্থানীয় গণমাধ্যমে সরাসরি দেখানো হচ্ছে, সেখানে প্রচণ্ড ধোঁয়া। ফায়ার সার্ভিসের হাইড্রোলিক ল্যাডারের মাধ্যমে তিনতলা এবং চারতলা থেকে গ্রিল কেটে তাদেরেকে নামানো হচ্ছে।

ভোর ছয়টার দিকে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের পক্ষ থেকে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন ঢাকা বিভাগের উপপরিচালক দেবাশীষ বর্ধন।

তিনি বলেন, আগুন আর ছড়িয়ে পড়ার আশঙ্কা নেই। নিচতলায় রাসায়নিকের গুদাম রয়েছে। তাই পরিস্থিতি পুরোপুরি নিয়ন্ত্রণে আনতে আরও সময় লাগবে।

ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ওই ভবনের প্রায় সব ফ্লোরে ঢুকে দেখেছেন। সেখানে আর কেউ নেই। সবাইকে ইতিমধ্যে উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে।

দেবাশীষ বর্ধন বলেন, “যে কেমিক্যাল রয়েছে সেগুলো হ্যাজারডিয়াস কেমিক্যাল। এগুলো কিলিং এজেন্ট। আবাসিক ভবনের নিচে এই ধরণের কেমিক্যাল থাকা একেবারেই উচিত না”।