মালাবদলের আগে পাত্রকে দুয়ের নামতা জিজ্ঞেস পাত্রীর, ভাঙল বিয়ে

সম্প্রতি বরযাত্রী সঙ্গে নিয়ে রাজকীয় বেশে বিয়ে করতে এসেছিলেন পাত্র। সবই ঠিক চলছিল, কিন্তু মালাবদলের আগে হঠাৎই দুয়ের ঘরের নামতা জিজ্ঞাসা করে বসেন পাত্রী।

তাতেই ঘটল যত বিপত্তি। জানা গেছে, ভারতের উত্তরপ্রদেশের মাহোবা এলাকায় গত শনিবার (১ মে) ঘটে এই ঘটনা।

পাত্রীপক্ষের অভিযোগ, পাত্রের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে মিথ্যা তথ্য দেওয়া হয়েছিল। তাই তারা পাত্রপক্ষের বিরুদ্ধে স্থানীয় প্রশাসনের কাছে জালিয়াতির অভিযোগ এনেছে।

পাত্রীর বোন জানিয়েছেন, আমার দিদি যথেষ্ট সাহসী, তাই বিয়ের মণ্ডপ থেকেই জানিয়ে দিতে পেরেছে- ও বিয়ে করবে না।

তবে স্থানীয় প্রশাসনের হস্তক্ষেপে ঘটনা বেশি দূর গড়ায়নি। গ্রামের কর্তাব্যক্তিদের মধ্যস্থতায় ঠিক হয়েছে, বিয়ে হবে না। দুপক্ষই একে ওপরকে সমস্ত উপহার, যৌতুক, গয়নাগাটি ফেরত দিয়ে দিয়েছেন।

সামাজিক চোখরাঙানিকে উপেক্ষা করে গ্রামের পাত্রীটি যে ভাবে শিক্ষাগত যোগ্যতা বিচার করে নিজের জীবনসঙ্গী বেছে নিতে চেয়েছেন, তাতে বাহবা দিচ্ছেন অনেকেই।

পাত্রী বলেন, আমার আগে থেকেই কেমন জানি সন্দেহ হচ্ছিল। এক পর্যায়ে আমি বুঝতে পারি ছেলে গণ্ডমূর্খ। তখনই আমি দুয়ের ঘরের নামতা বলতে বলি। যে দুয়ের ঘরের নামতা-ই জানে না তার সঙ্গে ঘর বাধার ইচ্ছা আমার নেই।

সূত্র : আনন্দবাজার