মুনিয়ার মৃত্যু-এবার উ,ল্টো ফেঁসে যাচ্ছেন বোন নুসরাত ও তার স্বামী

গত ২৬ এ,প্রিল গুল,শানের ১২০ নম্ব,র সড়,কের ১৯ ন,ম্বর বা,সার এক,টি ফ্ল্যা,ট থেকে মো,সারাত জা,হান মুনিয়া নামে এক ত’রু;ণীর লা’;;শ উ’দ্ধা;র করে পু’লিশ।

পরে এ ঘ’ট;নায় মুনি,য়ার বড় বোন বাদি হ,য়ে গুল,শান থা’নায় প্র’রোচ;নার অ’ভি;যোগ এনে এক,টি মা’মলা দা’য়ের করে।

মা’মলায় একমাত্র আ’সা;মি করা হয় বসুন্ধ,রা গ্রু,পের ব্য,বস্থাপনা পরি,চালক (এমডি) সায়েম সোবহান আনভীর,কে।

গুল,শানের বাসা,টি মুনি,য়ার বোন নুসরাত ও তার স্বা,মীর জা,তীয় প’রিচয়পত্র দিয়ে মাসিক এক লাখ টাকায় ভাড়া নেও,য়া হ,লেও এর ভাড়া পরিশো’ধ করতেন আন,ভীর।

ফেসবু,কে এক,টি ছবি আপ,লোড করা,কে কে,ন্দ্র করে সায়ে,ম সোব,হান আ,নভীর তার বো,নের (মুনিয়া) ওপর ক্ষু’;;ব্ধ হয়। আ,নভীরের প্র’রোচ;নায় তার বোন নিজের জী,বন শে’ষ করেছে বলে তিনি মা’মলায় অ’ভিযো;গ করেন।

এ,দিকে গুল,শানের যে বা,সায় থা,কতেন মোসা,রাত জাহান মুনিয়া সেই ফ্ল্যা,টটি কে ভাড়া নিয়ে,ছিলেন? কার ত’থ্য দেওয়া ছিল ‘ভাড়াটি,য়া ফ,র্মে’? অনুস’ন্ধানে জানা গেছে, গুল,শান-২ নম্ব,রের ১২০ ন,ম্বর সড়,কের ওই ফ্ল্যা,টটি ভাড়া নে,ওয়ার ভা,ড়াটিয়া ফ,র্মে ত’থ্য ছিল মুনি,য়ার বড় বোন নুস,রাত ও তার স্বা,মীর।

তাদের দুজ,নের জা,তীয় পরিচয়প,ত্রের (এনআ,ইডি) ফটো,কপি ওই ফ,র্মের স’ঙ্গে গেঁ,থে দে,ওয়া হয়ে,ছিল। আগাম ভা,ড়াও পরি;শো’ধ করেছিলেন তারা। শনিবার বিকালে মুঠো,ফোন আ;লাপে নুসরা,ত নি,জেও বিষ,য়টির স’ত্যতা স্বী,কার করেছেন।

তবে তিনি দা’বি করেছেন, বাসা ভাড়া নিতে মুনিয়া,কে ‘সাহায্য করতে’ তিনি বা’ধ্য হয়েছিলেন। মা’মলার ত’দ;ন্তে নিয়ো,জিত কর্মক’র্তা জানিয়েছেন, তা,রাও বিষয়,গুলো খতি,য়ে দেখছেন।

অনুস’ন্ধানে জানা যায়, ফ্ল্যা,ট ভা,ড়ার দুই মা,সের অ,গ্রিম দুই লাখ টাকা ‘মুনিয়ার ব্যাং,ক হিসাব’ থেকে তুলে এনে,ছিলেন মুনিয়া ও তার বোন নুসরাত। ভাড়া নেও,য়ার জ,ন্য নুস,রাত বাড়ির মালি,কপক্ষকে জানান, তিনি (নুসরাত), তার স্বা,মী ও ছো,ট্ট বোন,কে (মু,নিয়া) নিয়ে ওই ফ্ল্যা,টে থাক,বেন।

নুসরাত জানান, বাড়ি,ভাড়ার জ,ন্য যে টাকা অ,গ্রিম দিতে হয়ে,ছে এই টাকা দেও,য়ার অব,স্থা তাদের নেই। মু,নিয়ার ব্যাং,ক হিসাবে লাখ লাখ টাকা কোথা থেকে এলো, সেই উৎ,স কি তারা জানতে,ন? জবাবে নুস,রাত দা’বি করেন, তিনি এর কি,ছুই জান,তেন না।

বা,সাটি তিনি ভাড়া করে দিয়ে,ছিলেন কি না? এমন প্র,শ্নের জ,বাবে নুসরা,ত বলেন, ‘আমি ভাড়া করে দি,ইনি বা নি,ইনি। আমি বাসা ভাড়া নি,বো কেন? মু,নিয়া আ,মাকে ও আ,মার হাজবেন্ড,কে বাড়ি,ভাড়া নেবার সময় থা,কতে বা’ধ্য করেছিল। বলে,ছিল আমা,কে বাসা,টা নিতে হে,ল্প ক,রো।

তাই আমরা ওর (মুনিয়া) স’ঙ্গে ছিলাম। এসম,য় আমার ও আ,মার হাজ,বেন্ডের ভো,টার আই,ডি কা,র্ড ভাড়াটি,য়া ফ,র্মের স’ঙ্গে দিয়ে,ছিলাম। তবে আ,মরা ওই ফ,র্মে তখন সই ক,রিনি।’ ভাড়ার টাকা আপনি নিজের ব্যা,গ থেকে দিয়েছিলেন?

এমন প্র,শ্নে তিনি বলেন, ‘টাকা তো আমার কাছে থা,কতেই পারে। হ্যাঁ, আমি দিয়েছিলাম। ও অ,গ্রিম বাসা ভাড়া দেবার জ,ন্য যখন ব্যাং,ক থেকে টাকা তুলেছিল, তখন আমাকে টাকাগু,লো দিয়েছিল। মুনিয়া ‘হ্যান্ডপার্স’ নিয়েছিল। সে,খানে তো এতগু,লো টাকা রাখার জা,য়গা হয় না।

তাই, আমাকে সেই টাকা,গুলো দিয়ে,ছিল। আ,র এই টাকা মু,নিয়ার ব্যাং,ক হিসাব থেকে ক্যা,শ করা হয়েছিল। সেগু,লো তার একা,উন্টে রাখা হয়েছিল।’ তবে সেগু,লো কিসের টাকা বা কো,থা থেকে এ,সেছে তা তিনি জা,নেন না বলে দা’বি করেছেন।

বাসা ভাড়া ঠিক করা সময় উপ,স্থিত এক,টি সূত্রে, জানা গেছে, নুসরা,ত ফ্ল্যা,ট মালি,ককে জানিয়ে,ছিল তিনি, তার স্বা,মী মিজানুর রহমান সানি ও ছো,ট্ট বোন মুনিয়া,কে নিয়ে থাকবে,ন। এই শ,র্তেই তাদে,রকে ফ্লা,ট ভা,ড়া দেও,য়া হয়।