টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপও হাতছাড়া হচ্ছে ভারতের!

করোনার দ্বিতীয় ঢেউয়ে ভারতের অবস্থা টালমাটাল। দেশটিতে প্রতিদিন লাখ লাখ মানুষ করোনায় আক্রান্ত হচ্ছেন। প্রাণ হারাচ্ছেন হাজার হাজার মানুষ। এমন অবস্থায় মাঝপথে স্থগিত হয়ে গেছে আইপিএলের ১৪তম আসর।

আট দলের ঘরোয়া টুর্নামেন্টই যখন শেষ করা সম্ভব হয়নি, সেখানে বিশ্বকাপের মতো মেগা ইভেন্ট কীভাবে ভারতে আয়োজন করা হবে, তা নিয়ে প্রশ্ন উঠেছে। এর মধ্যে ধারণা করা হচ্ছে-

এই বছরের শেষের দিকে ভারতে আসতে পারে করোনার তৃতীয় ঢেউ। তাই আগামী অক্টোবর-নভেম্বরে ভারতে বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে শঙ্কা জেগেছে। শঙ্কায় আছে খোদ ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

সংবাদ সংস্থা প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়া (পিটিআই) জানিয়েছে, করোনার এই পরিস্থিতিতে ভারত থেকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ সরে সংযুক্ত আরব আমিরাতেই হতে পারে। ১৬ দলের এই টুর্নামেন্ট মরুর দেশেই আয়োজন করতে পারে ভারত। কারণ, করোনার এমন অবস্থা চলতে থাকলে কোনো দেশই ভারতে গিয়ে বিশ্বকাপ খেলতে রাজি থাকবে না।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বিসিসিআইয়ের কর্তা পিটিআইকে বলেছেন, ‘চার সপ্তাহ খেলার পর আইপিএল স্থগিত হয়ে যাওয়া আভাস দেয়- এখন বড় ধরনের বৈশ্বিক টুর্নামেন্ট ভারতে আয়োজনের অবস্থা নেই। ৭০ বছরের মধ্যে সবচেয়ে কঠিন স্বাস্থ্য সমস্যায় রয়েছে দেশ।

বিসিসিআইয়ের আরেক কর্মকর্তা জানান, করোনার নাটকীয় উন্নতি না হলে অস্ট্রেলিয়া, নিউজিল্যান্ডের মতো কয়েকটি দেশ আগামী ছয় মাস ভারতে ফ্লাইট বন্ধ রাখতে পারে। তাহলে পরিষ্কারভাবেই বোঝা যাচ্ছে ভারতে বিশ্বকাপের সম্ভাবনা কতটা ক্ষীণ। তবে, প্রশ্নের উত্তর মিলতে পারে আগামী জুনে আইসিসির সভায়।