মেয়েটির শরীরের অর্ধেক উপরে, অর্ধেকটা রাস্তার নিচে!

পাথরের তৈরি রাস্তা। এরমধ্যেই অর্ধেক শরীর নিয়ে উঁকি দিয়ে রয়েছে একটি মেয়ে। মেয়েটি জীবন্ত। যার শরীরের বাকি অংশ ঢুকে আছে রাস্তার নিচে- এমনই এক অদ্ভূত ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় চষে বেড়াচ্ছে।

আনন্দবাজার জানায়, গোলাপি পোশাক পরা নিজের মেয়ের ছবি মিডিয়ায় প্রকাশ করেছেন এক নারী। ছবিটি পোস্ট করে এর নিচে লিখেছেন, ‘আমার মেয়ের শরীরের বাকি অংশ কোথায়?’

ছবিটি নেট দুনিয়ায় প্রকাশের পরই তা নিয়ে শুরু হয় জল্পনা-কল্পনা। ছবিটি এক ঝলক দেখে মনে হচ্ছে, মেয়েটির শরীরের অর্ধেক যেন পাথরের রাস্তায় ঢুকে গিয়েছে। বাকি অংশ রাস্তার উপরে।

বিশ্লেষকরা অনেকে বলেছেন, ছবিটি ফোটোশপের মাধ্যমে করা হয়েছে। অনেকে আবার ছবিটির রহস্য বুঝতে গিয়ে ধাঁধায় পড়ে যাচ্ছেন।

মূলত এই ছবিটিতে ভালোভাবে নজর দিলে দেখা যাবে, মেয়েটির শরীরের অর্ধেক অংশ ‘অদৃশ্য’ দেখাচ্ছে। কারণ কংক্রিটের রাস্তা এবং তার পাশে থাকা দেয়ালটি একই রঙের। দুটোই আবার পাথরের তৈরি। মেয়েটির ডানপাশে থাকা দেয়ালটি উচ্চতা তার কোমরের সমান। আর এতেই অদৃশ্য হয়ে মিশে গেছে শরীরের অর্ধেক অংশ। এক ঝলকে দেখে মনে হচ্ছে, পাথরের রাস্তায় মেয়েটির শরীরের অর্ধেক অংশ ঢুকে গিয়েছে।

ছবিটি তাহলে পুরোটাই দৃষ্টির ধাঁধা। ভাইরাল হওয়া এই ছবিটি অপটিক্যাল ইনিউশন বা দৃষ্টিবিভ্রমের এক দৃষ্টান্ত হতে পারে।