‘লকডাউন’ বাড়ছে আরও এক সপ্তাহ

দেশে করোনার সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে না আসায় চলাচল ও মানুষের কার্যক্রমে চলমান বিধিনিষেধ (লকডাউন) আরও এক সপ্তাহ বাড়ানো হতে পারে। প্রস্তাব অনুমোদন পেলে আজ এ বিষয়ে প্রজ্ঞাপন জারি হবে।

রোববার (৩০ মে) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে। সর্বশেষ ঘোষণা অনুযায়ী আজ মধ্যরাত পর্যন্ত বিধিনিষেধ থাকার কথা।

জানা গেছে, লকডাউন আরো ৭ দিন বাড়ছে। ১ জুন থেকে শুরু হয়ে ৭ জুন পর্যন্ত বহাল রাখার হবে এই বিধিনিষেধ। দুপুরে এ বিষয়ে চিঠি ইস্যূর কাজ করছে মন্ত্রীপরিষদ বিভাগ। যে কোন সময় ঘোষণা আসতে পারে।

এর আগে সূত্র জানায়, করোনার দ্বিতীয় ঢেউ সামাল দিতে সারা দেশে ‘লকডাউন’ বা কঠোর বিধি-নিষেধ আরো সাতদিন বাড়িয়ে ৩১ মে পর্যন্ত বহাল রাখা হয় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ।

তবে কোভিড-১৯ সংক্রান্ত জাতীয় কারিগরি পরামর্শক কমিটির নতুন করে এই লকডাউন বাড়ানোর কোনো সুপারিশ করেনি। কমিটি এক্ষেত্রে মাস্ক পরাসহ স্বাস্থ্যবিধি মানানোর ওপর জোর দিয়েছে।

করোনার দ্বিতীয় ঢেউ শুরু হওয়ার পর গত ১৪ এপ্রিল ভোর ৬টা থেকে দেশে লকডাউন ঘোষণা করে সরকার। প্রথমে ঢিলেঢালাভাবে চললেও পরে কঠোর বিধি-নিষেধ আরোপ করে দেশজুড়ে ‘সর্বাত্মক লকডাউন’ দেওয়া হয়। পরে ৪ দফা লকডাউনের মেয়াদ বাড়ানো হয়, যা আজ ২৩ মে মধ্যরাত পর্যন্ত থাকবে।

চলমান এই লকডাউনে বন্ধ করে দেওয়া হয় বাস সার্ভিস, লঞ্চ, বিমান ও রেল যোগাযোগ। তবে পরবর্তীতে অর্ধেক আসন খালি রেখে সিটি করপোরেশন এলাকায় বাস ও অভ্যন্তরীণ রুটে ফ্লাইট চালু করা হয়, যা এখনো চলমান রয়েছে। এছাড়া কয়েকটি আন্তর্জাতিক রুটেও ফ্লাইট চালু করা হয়েছে।

জানা গেছে, জনগণের জীবন-জীবিকার কথা বিবেচনা করে লকডাউনের মেয়াদ আর বাড়াতে চায় না সরকার। তবে দেশে ভারতীয় ভেরিয়েন্ট শনাক্ত হওয়ায় কিছুটা উদ্বেগ দেখা দিয়েছে।

এ অবস্থায় মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে প্রধানমন্ত্রীর দপ্তরে চলমান লকডাউন আরো এক সপ্তাহ বাড়ানোর সুপারিশ করা হয়েছে।

সোনালীনিউজ