দাম কমবে মোবাইল-এসি-মোটরকারের

জাতীয় সংসদে ২০২১-২০২২ অর্থবছরের বাজেট পেশ করছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।বৃহস্পতিবার (৩ জুন) বিকেল ৩টায় জাতীয় সংসদে নতুন অর্থবছরের বাজেট উপস্থাপন শুরু করেন মন্ত্রী।

বাজেটে কৃষি যন্ত্রপাতি আমদানিতে অগ্রীম কর অব্যাহতি দেয়া হয়েছে। এছাড়া মোবাইল ফোন, এসি-ফ্রিজ, মোটরকার উৎপাদনে কর ছাড়ের সুবিধা বাড়ানো হয়েছে। এরফলে এসব যন্ত্রাংশের দাম কমবে।

একইসঙ্গে মেডিকেল যন্ত্রাংশ ও স্বাস্থ্য সুরক্ষা সামগ্রীর আমদানী শুল্ক প্রত্যাহার করা হয়েছে।

বাজেটে রাজস্ব আদায়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করা হয়েছে ৩ লাখ ৮৯ হাজার কোটি টাকা। এরমধ্যে এনবিআর আদায় করবে ৩ লাখ ৩০ হাজার কোটি টাকা।

বাজেটে মহামারি করোনা মোকাবিলায় ১০ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ রাখা হয়েছে।

এছাড়া উন্নয়ন খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ২ লাখ ২৫ হাজার কোটি টাকা।

এবারের বাজেটের মূল প্রতিপাদ্য ‘জীবন ও জীবিকার প্রাধান্য, আগামীর বাংলাদেশ’। আওয়ামী লীগের তৃতীয় মেয়াদের তৃতীয় অর্থবছরের বাজেটের আকার ছয় লাখ তিন হাজার ৬৮১ কোটি টাকা।দেশের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় ঘাটতি বাজেট হতে যাচ্ছে ৫০তম এ বাজেট। আলোচিত এই বাজেটে অনুদানসহ ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়াচ্ছে ২ লাখ ১১ হাজার ১৯১ কোটি টাকা। যা জিডিপির ৬ দশমিক ১ শতাংশ। অনুদান বাদ দিলে ঘাটতির পরিমাণ দাঁড়ায় ২ লাখ ১৪ হাজার ৬৮১ কোটি টাকা।

সরকার ব্যাংক থেকে ঋণ নেবে ৭৬ হাজার ৪৫২ কোটি টাকা।

স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে শুরু হওয়া অধিবেশনে উপস্থিত রয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। মন্ত্রীদের মধ্যে উপস্থিত রয়েছেন- মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের, কৃষিমন্ত্রী ড. আব্দুর রাজ্জাক, আইনমন্ত্রী আনিসুল হক, পরিকল্পনামন্ত্রী এমএ মান্নান, পররাষ্ট্রমন্ত্রী এ কে আব্দুল মোমেন, তথ্যমন্ত্রী ড হাছান মাহমুদ প্রমুখ।‌

এর আগে বাজেট প্রস্তাবনায় অনুমোদন দিয়েছে মন্ত্রিসভা।দুপুর ১২টায় জাতীয় সংসদ ভবনের পশ্চিম ব্লকের দ্বিতীয় তলায় বসে মন্ত্রিসভার বিশেষ বৈঠক।প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে বাজেট প্রস্তাবনা অনুমোদন দেয়া হয়।নিয়ম অনুযায়ী রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ বাজেট প্রস্তাবনায় স্বাক্ষর করেন।