নিউজিল্যান্ডের পর অস্ট্রেলিয়ার বিশ্বকাপ দল ঘোষণা

সবার আগে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের দল ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড। গত ৯ আগস্ট বিশ্বকাপসহ তিনটি সিরিজের দল ঘোষণা করে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট। এবার দ্বিতীয় দল হিসেবে আসল অস্ট্রেলিয়া।

আইসিসির বেঁধে দেয়া সূচি ১০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে দল ঘোষণা করার কথা থাকলেও প্রায় কুড়ি দিন আগেই জানিয়ে দিল কারা খেলবে বিশ্বকাপে।

গত জুলাইতে উইন্ডিজ সিরিজে চোটে ছিটকে যাওয়া অ্যারণ ফিঞ্চ বাংলাদেশ সফরে না আসতে পারলেও অধিনায়ক করা হয়েছে অ্যারন ফিঞ্চকে।

গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, কেইন রিচার্ডসন, মার্কাস স্টোইনিস, ডেভিড ওয়ার্নার এবং প্যাট কামিন্স ওয়েস্ট ইন্ডিজ এবং বাংলাদেশ সফরে না থাকলেও ফিরেছেন বিশ্বকাপ দলে।

স্টিভ স্মিথ কনুইয়ের চোট থেকে সেরে উঠেছেন, অধিনায়ক অ্যারন ফিঞ্চেরও হাঁটুর অস্ত্রোপচার সফল হওয়ায় সুস্থ হবার পথে।

বেইলি বলেন, “যারা দলে ফিরেছে তারা অনেক অভিজ্ঞ খেলোয়াড়। আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে কীভাবে সফল হওয়া যায় সব উভিজ্ঞতাই তাদের রয়েছে।”

১৫ সদস্যের দলে দলে নতুন মুখ জশ ইংলিস। যার কোনও অভিজ্ঞতাই নেই আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে কোনও ফরম্যাটে খেলার।

জশ ইংলিসকে নিয়ে বেইলি বলেছেন, “সাদা বলের ক্রিকেটে শেষ কয়েকটা টুর্নামেন্টে দারুণ পারফর্ম করেছে জশ। ও আমাদের নজরে ছিল। সম্প্রতি ভাইটালিটি ব্লাস্টে রান সংগ্রাহকের তালিকায়ও শীর্ষে ছিলেন।”

প্রধান নির্বাচক জর্জ বেইলি আশাবাদী এই দলটা নিয়ে। বলেছেন, “আমরা আত্নবিশ্বাসী এই দলটা নিয়ে। যে ছেলেগুলা দলে আছে তারা সবাই দারুণ।”

১৫ সদস্যের অস্ট্রেলিয়া দল: অ্যারন ফিঞ্চ (অধিনায়ক), অ্যাশটন আগার, প্যাট কামিন্স (সহ-অধিনায়ক), জশ হ্যাজলউড, জশ ইংলিস, মিচেল মার্শ, গ্লেন ম্যাক্সওয়েল, কেইন রিচার্ডসন, স্টিভ স্মিথ, মিচেল স্টার্ক, মার্কাস স্টোইনিস, মিচেল সুইপসন, ম্যাথু ওয়েড, ডেভিড ওয়ার্নার ও অ্যাডাম জাম্পা।