একসঙ্গে দুই পুত্রবধূ নিখোঁজ, শ্বশুরের জিডি

কক্সবাজারের চকরিয়া উপজেলার সাহারবিল ইউনিয়নে একই পরিবারের দুই গৃহবধূ নিখোঁজ হয়েছেন। এ ঘটনার তিন দিন পেরিয়ে গেলেও তাদের কোনো সন্ধান মিলেনি। একজনের কোলে এক বছরের একটি শিশুসন্তানও রয়েছে।

একই দিনে দুই পুত্রবধূ নিখোঁজ হওয়ার ঘটনায় শ্বশুর জাকের আহমদ বাদী হয়ে গত ২৭ আগস্ট চকরিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন।

জিডি সূত্রে জানা গেছে, চকরিয়ায় উপজেলার কাজলিবাপের চর গ্রামের ওসমান গণির সঙ্গে সার্জিনা আক্তারের (২২) বিয়ে হয়। তাদের জাওয়াত আফরান ওবাইদুল্লা নামের ১৫ মাসের শিশুসন্তান রয়েছে। ওসমান গণি চাকরির সুবাধে চট্টগ্রামেই থাকেন।

জিডি সূত্রে জাকের আহমদ জানান, চলতি বছরের গত ৫ জুন তার ছোট ছেলে মো. ইউনুছ (২৭) সাহারবিলের ২ নম্বর ওয়ার্ড নয়াপাড়া এলাকার জন্নাতুল বকেয়া তায়িনকে (১৮) বিয়ে করেন।

শ্বশুর জাকের আহমদ বলেন, ‘ওসমান গণির স্ত্রী সার্জিনা আক্তার বিভিন্ন সময় নানা অজুহাতে ঘর থেকে বেরিয়ে যেতেন। সর্বশেষ গত ২৪ আগস্ট বেলা ১১টার দিকে সার্জিনা তার এক বছরের শিশুসন্তানকে টিকা দিতে যাওয়ার কথা বলে আরেক পুত্রবধূ জন্নাতুল বকেয়া তায়িনকেও সঙ্গে নিয়ে যান।’

জিডিতে উল্লেখ করেন, যাওয়ার সময় বাড়ি থেকে সব ধরনের স্বর্ণালংকার ও টাকা-পয়সা সঙ্গে করে নিয়ে যান। এরপর থেকে আর বাড়িতে ফিরে আসেনি তারা। পরে উভয়ের বাপের বাড়িতেও যোগাযোগ করে খোঁজখবর নিলে তাদের কোনো সন্ধান পাওয়া যায়নি। পুত্রবধূ সার্জিনা আক্তারের মোবাইলে কল করা হলে রিং হলেও তিনি তা রিসিভ করেননি।

জিডির বাদী জাকের আহমদ ধারণা, তাঁর দুই পুত্রবধূ কোনো দুষ্ট চক্রের পাল্লায় পড়েছেন। ওই চক্রের পাতানো ফাঁদে পা দিয়ে নতুন পুত্রবধূ জন্নাতুল বকেয়া তায়িনকেও ফুসলিয়ে নিয়ে যায় সার্জিনা আক্তার। তাই তাদের কোনো অঘটন ঘটতে পারে-এমন আশঙ্কা থেকে নিখোঁজ সংক্রান্ত একটি জিডি থানায় জমা দিয়েছেন।