তামিমকে মিস করলে অন্য ক্রিকেটারকে অসম্মান করা হবে: রাজ্জাক

অনুশীলনের ঘাটতি এবং অন্যান্য পারিপার্শ্বিকতা মিলিয়ে এবারের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ থেকে নিজেকে সরিয়ে নিয়েছেন বাঁহাতি ওপেনার তামিম ইকবাল। বুধবার (১ সেপ্টেম্বর) ফেসবুকে এক ভিডিও বার্তায় বিশ্বকাপ থেকে সরে দাঁড়ানোর ঘোষণা দেন দেশসেরা এই ওপেনার।

তামিমের ঘোষণার পরেই রাইজিংবিডির আলাপ হয় জাতীয় নির্বাচক আব্দুর রাজ্জাকের সঙ্গে। তার সংক্ষিপ্ত সাক্ষাৎকারে উঠে এসেছে নানা বিষয়। রাইজিংবিডির পাঠকদের জন্য হুবহু তা তুলে ধরা হলো।

তামিমের বিশ্বকাপে না খেলার বিষয়টি জানতেন কি?

রাজ্জাক: যেহেতু আমরা জানতাম না; বিষয়টি আমাদের কাছে অপ্রত্যাশিত। ও যথেষ্ট বড়, তার নিজের সিদ্ধান্ত নেওয়ার অধিকার আছে। এসব ব্যক্তিগত সিদ্ধান্তগুলোর প্রতি আমাদের সম্মান দেখানো উচিত। তামিম সবকিছু বলে দিয়েছে; ও মনে করেছে এটাই ঠিক। আমাদের তার সিদ্ধান্তের প্রতি সম্মান দেখানো উচিত।

তামিমের এই সিদ্ধান্ত নিউ জিল্যান্ডের বিপক্ষে বাংলাদেশের খেলায় কোনো প্রভাব ফেলবে কি না?

রাজ্জাক: প্রভাব পড়ার কোনো সুযোগই নেই। এটা সম্পূর্ণ ভিন্ন একটা ব্যাপার। এটা নিয়ে খেলার মধ্যে প্রভাব পড়ার কোনো সুযোগ আমি দেখছি না। যখন ক্রিকেটাররা খেলতে নামে এতকিছু নিয়ে চিন্তা করার সুযোগ থাকে না।

তামিমের মতো একজন অভিজ্ঞ ক্রিকেটারের অভাববোধ…

রাজ্জাক: আমি এখন কি বলব, কেউ একজন না খেললে তাকে ছাড়া মাঠে নামা সম্ভব না। এখন কি এটা বলতে পারব আমি? অবশ্যই না। যখন আমি বলব ওই ক্রিকেটারকে আমি মিস করছি; তাহলে আরেকজন যাকে নিচ্ছি তাকে আমি বিশ্বাসই করছি না। যেই ক্রিকেটারকে নেব, তাকে অসম্মান করা হবে। ও হলেই ভালো হতো; অন্য কেউ হলে হবে না এরকম বলে যে খেলোয়াড়টাকে নেওয়া হবে, তার ভালো করার সুযোগও কম থাকে। বিশ্বাস না রেখে দলে নিলে ভালো করার সুযোগ কমে যায়, এটাও আসলে দেখা উচিত। আমি ব্যক্তিগতভাবে এটা বলতে পারব না। একজন না থাকলে এটা-ওটা হয়ে যাবে।

তামিমের পরিবর্তে কাকে ভাবা হচ্ছে?

রাজ্জাক: দলে ক্রিকেটার ৩০ জন (বিসিবির পুলে), ১৫ জন কিন্তু না। কেউ একজন যদি নাম প্রত্যাহার করে তাহলে কাউকে না কাউকে নিতেই হবে। কেউ একজন ইনজুরি হলেও কাউকে না কাউকে এভাবেই নিতে হবে। সেটার জন্য অপশন রাখতে ৩০ জনের পুল। মাত্র সে ঘোষণা দিয়েছে। আমরা এখন বসব, মিটিং হবে, তারপর সিদ্ধান্ত নেব।

বিশ্বকাপ ভাবনায় তামিম ছিলেন কি না?

রাজ্জাক: এখন আপনারা এটা নিয়ে কথা বলবেন না। চিন্তা-ভাবনা পরে করা যাবে। ভাবনা নিয়ে কেন কথা উঠবে? আপনার কি মনে হয় তামিম দলে থাকবে না? বিশ্বকাপ দল হচ্ছে, তামিম দলে থাকবে না এটা কি হয়?