৮ ব্রাজিলিয়ানকে নিষিদ্ধ করল ফিফা

এবার নিষিদ্ধ হলেন ব্রাজিলের ৮ তারকা ফুটবলার। ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে খেলেন এমন ৮ জন খেলোয়াড়কে ৫ দিনের জন্য নিষিদ্ধ করেছে সর্বোচ্চ নিয়ন্ত্রক সংস্থা ফিফা।

লিভারপুল, ম্যানচেস্টার সিটি, চেলসি, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড, লিডস ইউনাইটেডের হয়ে খেলেন এই খেলোয়াড়রা।

ব্রাজিলের ফুটফল ফেডারেশনের অনুরোধেই এমন সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে ক্লাবগুলোকে ফিফা জানিয়েছে।

যে ৮ ফুটবলার নিষিদ্ধ হয়েছেন তারা হলেন- লিভারপুলের গোলকিপার আলিসন, স্ট্রাইকার রবার্তো ফিরমিনো ও মিডফিল্ডার ফাবিনিও; ম্যানচেস্টার সিটির গোলকিপার এদেরসন ও স্ট্রাইকার গাব্রিয়েল জেসুস; ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের মিডফিল্ডার ফ্রেদ; চেলসির ডিফেন্ডার থিয়াগো সিলভা ও লিডস ইউনাইটেডের উইঙ্গার রাফিনিয়া।

ব্রাজিল ২০২২ ফিফা বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে তিনটি ম্যাচ খেলার কথা, এগুলোর মধ্যে একটি খেলেছে, আর্জেন্টিনার বিপক্ষে দ্বিতীয় ম্যাচটি স্থগিত হয়ে গেছে আইনি জটিলতায়। পেরুর বিপক্ষে পরের ম্যাচটি ব্রাজিল খেলবে বাংলাদেশ সময় আগামী শুক্রবার ভোরে।

কিন্তু করোনায় বাজেভাবে আক্রান্ত ব্রাজিল থেকে ফেরার ক্ষেত্রে বাধ্যতামূলক কোয়ারেন্টাইনের নিয়ম রেখেছে ইংল্যান্ড, সে কারণে এই তিন ম্যাচের জন্য ব্রাজিলিয়ান খেলোয়াড়দের ছাড়েনি ইংলিশ দলগুলো।

একারণে ইংলিশ দলগুলোর ওপর পাল্টা সিদ্ধান্ত দিল ব্রাজিলের ফুটবল ফেডারেশন। এ সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, পাঁচ দিন ক্লাবগুলোর হয়ে মাঠে নামতে পারবেন না আট ব্রাজিলিয়ান। আগামী ১০ থেকে ১৪ সেপ্টেম্বর কোনো ম্যাচ খেলতে পারবেন না তারা।

ফিফার শৃঙ্খলাবিধির ধারা নম্বর ২২ অনুযায়ী, ক্লাবগুলো ৫ দিনের নিষেধাজ্ঞার এই নিয়ম না মানলে নিষিদ্ধ থাকা খেলোয়াড়কে যে ম্যাচে খেলানো হয়েছে, সেই ম্যাচের ফল বাতিল করা হবে (ওই খেলোয়াড়ের দলকে ৩-০ গোলে পরাজিত ঘোষণা করা হবে)। পাশাপাশি ক্লাবকে তো জরিমানা করা হবেই, খেলোয়াড়কেও জরিমানা করা হতে পারে।