রাজকীয় প্রত্যাবর্তন, তবুও বাদ পড়ছেন রোনালদো!

ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের হয়ে শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) দ্বিতীয় অভিষেকে রাজকীয় প্রত্যাবর্তন ঘটেছে ক্রিস্টিয়ানো রোনালদোর। এদিন জোড়া গোল করে সামনে থেকে নেতৃত্ব দিয়ে দলকে জিতিয়েছেন পর্তুগিজ রাজপুত্র।

তবে এমন স্বপ্নের প্রত্যার্তনের পরও বিশ্বসেরা এই ফুটবলারকে প্রতি ম্যাচে খেলাবে না বলে জানিয়ে দিয়েছে ইংলিশ ক্লাবটির কোচ ওলে গানার সোলশার।

তবে রোনালদোকে অনিয়মিত খেলানোর পেছনেও ম্যানইউ কোচের সিদ্ধান্ত যৌক্তিক বলে মনে করা হচ্ছে। ফুটবলবিষয়ক ওয়েবসাইট গোল ডট কমের বরাতে জানা গেছে, সোলশার বলেছেন, ‘দলের হয়ে দারুণ শুরু পেয়েছে রন। কিন্তু তার বয়সটাও মাথায় রাখতে হবে আমাদের। আর তাই তাকে নিয়ে আমরা আরও সতর্ক থাকতে চাই।’ উল্লেখ্য, বিশ্বসেরা এই ফুটবলারের বয়স এখন ৩৬।

এদিকে, পুনরাভিষেকের ম্যাচে ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে নিউক্যাসলের বিপক্ষে জোড়া গোল করে দলকে সামনে থেকে নেতৃত্ব দেন ক্রিস্টিয়ানো। আর তাই তাকে ছাড়া একাদশের চিন্তা করাটাও অন্যায়। কিন্তু তবুও রনকে নিয়ে বাড়তি সতর্ক থাকতেই এমন কঠিন সিদ্ধান্ত নিয়েছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড।

রোনালদোকে ছাড়া খেলা অসম্ভব কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে ম্যানইউ কোচ বলেন, রন এমন খেলোয়াড় যে কোনো কোচই তাকে পুরো ৯০ মিনিট খেলাতে চাইবে। কিন্তু আমাদের অবশ্যই তার দিকটাও বিবেচনা করতে হবে। এটা সত্যিই অসম্ভব যে, তাকে ছাড়া দল চিন্তা করা।’ সোলশার আরও বলেন, ‘আমরা তার (রোনালদোর) প্রতিটি মুহূর্তই কাজে লাগাতে চাই। অর্থাৎ মেপে মেপে খরচ করতে চাই।’

এদিকে, রোনালদোর প্রত্যাবর্তনের আগে নিজেদের হারিয়ে খুঁজছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। শক্তিশালী প্রতিপক্ষ লিভারপুল এবং নগর প্রতিদ্বন্দ্বী ম্যানসিটির বিপক্ষেও শক্ত অবস্থানে ছিল না ক্লাবটি। তবে রোনালদো আসার পরই দৃশ্যপট পাল্টে গেছে। ঘরের ছেলে ঘরে ফেরায় যেন প্রাণ ফিরে পেয়েছে ম্যানইউ।

এ প্রসঙ্গে সোলশার বলেন, ‘সে আসায় আমাদের দলের চেহারাই পাল্টে গেছে। এখন ইপিএলে আরও শক্ত অবস্থানে পৌঁছে যাব আমরা। আশা করি নেতৃত্ব দেব।’ আরও বলেন, ‘রাফায়েল ভারানে এবং ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো চ্যাম্পিয়ন ফুটবলার। যে কোনো ক্লাবই তাদের পেতে চাইবে। সৌভাগ্যবশত আমরা তাদের পেয়েছি। তাদের কাছে পেয়ে তরুণ খেলোয়াড়রাও অনেক কিছু শিখতে পারছে।’

এদিকে জানা গেছে আজ সোমবার (১৩ সেপ্টেম্বর) চ্যাম্পিয়ন লিগের নতুন মৌসুম শুরু করতে সুইজারল্যান্ড যাচ্ছে ম্যানইউ। আগামীকাল মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেম্বর) গ্রুপ-এফ এর উদ্বোধনী ম্যাচে মাঠে নামবে দল।

যদি এ ম্যাচে রোনালদো খেলে, তাহলে চ্যাম্পিয়ন লিগে সর্বাধিক ম্যাচ খেলা ইকার ক্যাসিয়াসের ১৭৭ ম্যাচের রেকর্ড ছুঁয়ে ফেলবে পর্তুগিজ রাজপুত্র।