‘মা নোংরা পথে গিয়েছিল, তাই খু’ন করে মাটিতে পুঁতে দিয়েছি’

ছোট ছেলে খু’ন করে পুঁতে দিয়েছিলেন মাকে। দুবছরের বেশি সময় নি’খোঁজ থাকার ওই নারীর ক’ঙ্কাল উদ্ধার করেছে ভারতীয় পু’লিশ।

পশ্চিমঙ্গের বর্ধমান শহরের কাছে একটি এলাকায় ঘটনাটি ঘটেছে।

অভিযুক্তের নাম নয়ন শেখ। বুধবার নয়নকে সঙ্গে নিয়ে মাটি খুঁড়ে হাড়গোড় উদ্ধার করল পু’লিশ। পু’লিশ নি’হতের মাথার খুলি, হাড়গোড় উদ্ধার করেছে।

আনন্দবাজার জানিয়েছে, ছোট ছেলে নয়নের সঙ্গেই থাকতেন মা সুকরানা বিবি। ২০১৯-এর জানুয়ারি থেকে নি’খোঁজ ছিলেন সুকরানা। তার বড় ছেলে শেখ রাজা বহু জায়গায় খোঁজাখুজি করেও মায়ের খোঁজ পাননি। এর পর থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করা হয়।

দিন কয়েক আগে নয়নের সঙ্গে তার স্ত্রীর অশান্তি হয়। সেই কারণে তার স্ত্রী বাপের বাড়িতে চলে যান। পরে ভাইয়ের স্ত্রীকে ফের বুঝিয়ে শ্বশুরবাড়িতে ফিরিয়ে আনতে যান শেখ নয়নের ভাই শেখ রাজা।

বাড়ি ফিরলে নয়ন তাকে খুন করে মাটিতে পুঁতে দেওয়ার হুমকি দিয়েছেন বলে শেখ রাজাকে জানান নয়নের স্ত্রী। এ কথা শুনে নয়নের শ্বশুরবাড়ি থেকে ফিরে আসেন রাজা।

বাড়ি ফিরে স্থানীয় পু’লিশ প্র’শাসনকে গোটা ঘটনা তিনি জানান।

এরপর অ’ভিযুক্ত নয়নকে পু’লিশ আ’টক করে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি খুনের কথা স্বীকার করেন।

বুধবার অভিযুক্তকে ঘটনাস্থলে নিয়ে গিয়ে মাটি খুঁড়ে কঙ্কাল উদ্ধার করেছে পু’লিশ।

মাকে খু’নের কারণ জিজ্ঞাসা করলে নয়ন বলেছেন, ‘মা নোংরা পথে চলে গিয়েছিল। বারণ করা হলেও শুনত না। তাই খুন করে মাটিতে পুঁতে দিয়েছি।’

বর্ধমান থানার আইসি সুখময় চক্রবর্তী বলেন, উদ্ধার হওয়া খুলি এবং হাড়গোড় ময়নাতদন্তের জন্য পাঠানো হয়েছে বর্ধমান মেডিকেল কলেজের ম’র্গে।’

সুত্রঃ আনন্দবাজার