বাবার চেয়ে দুই বছর তিন মাসের বড় ছেলে

ফরিদপুর সদরের চাঁদপুর ইউনিয়নে জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী বাবার চেয়ে দুই বছর তিন মাসের বড় ছেলে। আনোয়ার হোসেনের জন্মতারিখ ১৯৪০ সালের ৫ জুলাই। জাতীয় পরিচয়পত্র অনুযায়ী আনোয়ার হোসেনের বাবা গফুর মোল্লার জন্মতারিখ ১৯৪২ সালের ৫ অক্টোবর। অর্থাৎ আনোয়ার হোসেন তার বাবা গফুর মোল্লার চেয়ে বয়সে দুই বছর তিন মাসের বড়।

এমন প্রতারণার আশ্রয় নিয়ে জাতীয় পরিচয়পত্র সমাজসেবা অফিসে জমা দিয়ে সরকারি বয়স্ক ভাতা উত্তোলনের অভিযোগ উঠেছে আনোয়ার হোসেনের বিরুদ্ধে। আনোয়ার হোসেন ফরিদপুর সদরের চাঁদপুর ইউনিয়নের ধোপাডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দা আব্দুল গফুর মোল্লার ছেলে। তিনি পেশায় মুরগির ব্যবসা করেন। এ বিষয়ে গত ১ সেপ্টেম্বর একই গ্রামের এক বাসিন্দা এ প্রতারণার বিষয়ের প্রতিকার চেয়ে বোয়ালমারী সমাজসেবা কর্মকর্তা বরাবর একটি লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছেন।

মো. আনোয়ার হোসেনের কাছে তার বয়স জানতে চাইলে তিনি মোবাইল ফোনে জানান, তার বয়স ৮২ বছর। তবে তার বাবা গফুর মোল্লার বয়স জানতে চাইলে তিনি তা না বলে ফোন কেটে দেন। পরে আবারও তাকে ফোন করলে তিনি বলেন, জাতীয় পরিচয়পত্র যারা করেছেন, তারাই ভুলে তার বয়স বাড়িয়ে দিয়েছেন। এখানে তার কোনো হাত ছিল না।

অন্যদিকে আনোয়ারের বাবা আব্দুল গফুর মোল্লা জানান, তার ছেলে আনোয়ার হোসেনের বয়স বড়জোর ৫৬ বা ৫৭ বছর হতে পারে। ধোপাডাঙ্গা গ্রামের বাসিন্দারা জানান, মো. আনোয়ার হোসেন একজন সচ্ছল ব্যক্তি। তিনি মুরগির ব্যবসা করে স্বাবলম্বী হয়েছেন। তিনি বিভিন্ন সময় বিভিন্ন নাম ব্যবহার করে এবং জাতীয় পরিচয়পত্রে বয়স বাড়িয়ে বয়স্ক ভাতা, ১০ টাকা কেজি মূল্যের চাল, এককালীন ২ হাজার ৫০০ টাকাসহ বিভিন্ন সরকারি প্রণোদনা হাতিয়ে নিচ্ছেন। পাশাপাশি আনোয়ারের বাবা গফুর মোল্লাও বয়স্ক ভাতা পাচ্ছেন।

জেলা সমাজসেবা অধিদপ্তর সূত্রে জানা গেছে, পুরুষদের ক্ষেত্রে ৬৫ এবং নারীদের ক্ষেত্রে ৬২ বছর না হলে কোনো পুরুষ বা নারী বয়স্ক ভাতার আওতায় আসেন না। প্রতি মাসে ৫০০ টাকা হারে প্রতি তিন মাস অন্তর বয়স্ক ব্যক্তিদের এই ভাতা প্রদান করা হয়। আনোয়ার হোসেন ইতিমধ্যে দুই দফা (ছয় মাসে) বয়স্ক ভাতার টাকা গ্রহণ করেছেন।

এদিকে চাঁদপুর ইউনিয়নটি বর্তমানে ফরিদপুর সদর উপজেলার অন্তর্ভুক্ত হলেও সমাজসেবা বিভাগ এখনো বোয়ালমারীর উপজেলা আওতাধীন রয়েছে। এ ব্যাপারে বোয়ালমারী উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা প্রকাশ কুমার বিশ্বাস বলেন, বয়স জালিয়াতি করে বয়স্ক ভাতা তুলছেন, এ জাতীয় একটি লিখিত অভিযোগ আমাদের কাছে এসেছে। ইতোমধ্যে ওই ব্যক্তি দুবার ভাতাও তুলেছেন। বয়স লুকিয়ে ইচ্ছাকৃতভাবে ভাতা তোলা একটি ঘোরতর অন্যায় কাজ। বিষয়টি দ্রুত তদন্ত করে এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান এই কর্মকর্তা।

সুত্রঃ বিডি২৪লাইভ