শত্রুতা যখন মাছের সঙ্গে

পাবনার সাঁথিয়া পৌরসভাধীন নওয়ানী গ্রামে নাজমা বেগমের প্রায় দেড় বিঘা পুকুরে বিষ প্রয়োগ করে মাছ মেরে ফেলেছে দুর্বৃত্তরা। গতকাল বুধবার দিবাগত রাতে এ ঘটনা ঘটে। ‘

সাঁথিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। এ ঘটনায় নাজমা বেগম বাদী হয়ে কয়েকজনের নাম উল্লেখ করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন।

নাজমা বেগম বলেন, ‘সপ্তাহ খানেক আগে আমার পার্শ্ববর্তী এলাকায় জুয়া খেলার অপরাধে কয়েকজনকে পুলিশ আটক করে জেলহাজতে পাঠায়। তারা মনে করেছে পুলিশকে আমি খবর দিয়েছি। এজন্য তাদের ধরে নিয়ে গেছে। তারা জেল থেকে বের হয়ে এসে আমাকে দেখে নেওয়ার হুমকি দেয়।’ তিনি বলেন, ‘বসতবাড়ির পাশেই পুকুর হওয়ায় আমি প্রতি রাতেই জানালা খুলে দেখি কেউ কোনো ক্ষতি করে কিনা। গতকাল দিবাগত রাত সাড়ে ১২টার দিকে পুকুরের পানির শব্দ পেয়ে জানালা খুলতেই দেখি এলাকার লিটন, শাহীন, নুর আলম, শফিকুল ও মঞ্জু পুকুরের আশপাশে ঘুরছে। কিন্তু আমি ভয়ে তাদের মুখোমুখি হইনি। তখনই আমার সন্দেহ হয়। সেই সন্দেহ নিয়েই আমি ঘুমিয়ে পড়ি। সকালে ঘুম থেকে উঠে দেখি মরা মাছ ভেসে ওঠে পুরো পুকুর সাদা হয়ে আছে। এতে আমার প্রায় পাঁচ লাখ টাকা ক্ষতি হয়েছে। আমি এর বিচার চাই।’

সাঁথিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসিফ মোহাম্মদ সিদ্দিকুল ইসলাম অভিযোগের সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়েছিলাম। বিষয়টি তদন্ত করে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করব।’

সূত্র: এন টিভি নিউজ