জামালপুরে নিখোঁজ ৩ মাদ্রাসাছাত্রী ঢাকা থেকে উদ্ধার

জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার দারুত তক্বওয়া মহিলা মাদ্রাসার ৩ ছাত্রীকে নিখোঁজের ৫ দিন পর ঢাকার মুগদা থেকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। ইসলামপুর সার্কেলের এএসপি মো: সুমন মিয়ার নেতৃত্বে পুলিশের একটি দল বৃহস্পতিবার রাতে তাদের উদ্ধার করে।

ইসলামপুর সার্কেলের এএসপি মো: সুমন মিয়া জানান, বৃহস্পতিবার ঢাকার কমলাপুর রেল স্টেশনের সিসিটিভির ফুটেজ থেকে নিখোঁজ ৩ ছাত্রীকে শনাক্ত করা হয় এবং সেখানকার রিক্সাচালকদের জিজ্ঞাসা করলে তিনজনকে রিক্সায় করে যাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করে।

পরে তাদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে ছাত্রীদের মধ্যে দুইজনের আত্মীয়র বাসায় খোঁজ নেয়া হয় এবং পরে মাদারটেক মিল এলাকায় খোঁজ শুরু করা হয়। সেখানে স্থানীয়রা ৩ ছাত্রীকে রিক্সায় করে যেতে দেখেছে জানালে ওই রিক্সাচালককে খোঁজে বের করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। সে জানায় ওই ৩ ছাত্রী রাজা মিয়া নামে তার এক বন্ধুর কাছে রয়েছে।

পরে রাজার দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে মুগদার মানদা বস্তির একটি কক্ষ থেকে ঘুমন্ত অবস্থায় ওই ৩ ছাত্রীকে উদ্ধার করা হয়। রাজা জানিয়েছে, মাসিক পনেরশ টাকা ভাড়ায় তাদেরকে ঘর ভাড়া নিয়ে দিয়েছে এবং দুইজনকে একটি গামেন্টে চাকরিও নিয়ে দিয়েছে সে।

উল্লেখ্য, গত রবিবার ভোররাত থেকে জামালপুরের ইসলামপুর উপজেলার দারুত তক্বওয়া মহিলা মাদ্রাসার আবাসিক ৩ ছাত্রী নিখোঁজ হয়। সোমবার বিকালে মাদ্রাসা পক্ষ থেকে নিখোঁজ ছাত্রীর ব্যাপারে সাধারণ ডাইরি করলে পুলিশ ওইদিন রাতেই মাদ্রাসায় অভিযান চালিয়ে বাকী আবাসিক ছাত্রীদের অভিভাবকের হাতে তুলে দিয়ে মাদ্রাসায় তালা ঝুলিয়ে দেয় এবং পরিচলাকসহ ৪ শিক্ষককে আটক করে। পরে নিখোঁজ এক ছাত্রীর বাবার মামলার প্রেক্ষিতে বুধবার মাদ্রাসার ৪ শিক্ষককে আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়।

সুত্রঃ বিডি প্রতিদিন