জামাই-শ্বশুরের ভয়াবহ সং’ঘর্ষে আ’হত ৩৫

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জে জামাতার সঙ্গে শ্বশুরের দ্বন্দ্বের জের ধরে দেশীয় অস্ত্র টেঁটা নিয়ে দুই গ্রুপের সং’ঘর্ষ হয়েছে। এতে নারীসহ কমপক্ষে ৩৫ জন আ’হত হয়েছেন। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিকেলে উপজেলার শিবপাশা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। পরে সংবাদ পেয়ে পু’লিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে সক্ষম হয়।

স্থানীয় ও প্রতিবেশীরা জানান, মাহতাবুর রহমান এবং তার জামাতা গ্রীস প্রবাসী মোতাক্কির ওরফে মহসিনের মধ্যে দীর্ঘদিন এলাকায় আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। সব সময়ই মোতাক্কির মিয়ার চাচাতো ভাই পর্তুগাল প্রবাসী জুয়েল মিয়া তার মাহতাবুর রহমানের পক্ষে অবস্থান নেন। এ নিয়ে তাদের বিরোধ আরও চরম আকার ধারণ করে।

এদিকে, গত শুক্রবার (২৪ সেপ্টেম্বর) রাতে মাহতাবুর রহমান থানায় অভিযোগ করেন তার মেয়েকে জামাতা আটকে রেখে নি’র্যাতন করছেন। এ সংবাদ পেয়ে পু’লিশ গিয়ে ঘটনার সত্যতা পায়নি। পরে এ অবস্থায় শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) জামাতা ও শ্বশুরের পক্ষের লোকজন দেশীয় অ’স্ত্র টেঁটা নিয়ে সং’ঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন। এ সময় নারীসহ অন্তত ৩৫ জন আ’হত হন।

এ ঘটনায় শিবপাশা ফাঁড়ির ইনচার্জ গোলাম কিবরিয়া হাসান সাংবাদিকদের জানান, জামাই এবং শ্বশুর একই গোষ্ঠীর। তারা উভয়পক্ষের লোকজন বিদেশে অবস্থান করে। জামাই নিজেও গ্রীসে থাকে। গ্রামের কোনো বিষয়ে শ্বশুর এক পক্ষে থাকলে জামাই অন্য পক্ষে থাকে। নির্বাচনেও তারা একে অপরের বিরুদ্ধে থাকে।

তিনি আরও জানান- এ নিয়েই মূলত তাদের বিরোধ চরম আকার ধারণ করেছে। তাদের আধিপত্য বিস্তার নিয়ে বিরোধের জের ধরেই সং’ঘর্ষ হয়েছে। আজমিরীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. নূরুল ইসলাম সাংবাদিকদের জানান, বর্তমানে পরিস্থিতি শান্ত রয়েছে। পুনরায় সং’ঘর্ষ এড়াতে এলাকায় অতিরিক্ত পু’লিশ মোতায়ের করা হয়েছে।

সূত্রঃ বিডি ২৪ লাইভ