২২ কিলোমিটার পথ পেরিয়ে প্রতিশোধ নিলো বানর!

ভারতের কর্নাটক রাজ্যে ২২ কিলোমিটার পথ পেরিয়ে চিক্কামাগালুর জেলার কোত্তিগেহারা গ্রামে ফিরে প্রতিশোধ নিয়েছে একটি বানর।

বনেট ম্যাকাউ প্রজাতির কম বয়সী বানরটি ওই গ্রামে ঢুকে মানুষের কাছ থেকে ফল ও খাবার সামগ্রী কেড়ে নিতে থাকে। প্রাথমিকভাবে মানুষ বানরটিকে গুরুত্ব দেয়নি। তবে স্কুল খুললে বানরটিকে মোরারজি দেশাই স্কুলের কাছে আবারও দেখা যায়। খবর- নিউজ এইটটিন।

স্কুল এলাকায় বানরটিকে ঘুরতে দেখে শিক্ষার্থীরা ভয় পেতে দেখে, কেউ একজন বন বিভাগকে জানিয়ে দেয়। গত ১৬ সেপ্টেম্বর বানরটিকে ফাঁদে ফেলে উদ্ধারকারী দল।

বানরটিকে ধরতেও উদ্ধারকারী দলকে কঠিন পরিস্থিতিতে পড়তে হয়। নিতে হয় আশেপাশের মানুষদের সহায়তাও। সেই সময় জগদীশ নামে এক অটোচালকের ওপর আক্রমণ করে বানরটি। হাতে কামড় দেওয়ার পাশাপাশি টানা হেঁচড়া করে মাটিতে ফেলে দেয়। জীবন বাঁচাতে জগদীশ দৌড় দিলে বানরটিও তাকে ধাওয়া দেয়। ওই ব্যক্তি একটি অটো রিকশাও লুকায় কিন্তু বানরটি ওই গাড়িতে আক্রমণ করে সেটির কাভার ছিড়ে ফেলে।

জগদীশ বলেন, আমি ভীষণ ভয় পেয়ে যাই। পাগলা বানরটি সবজায়গায় আমাকে অনুসরণ করে। এটি এতো জোরে কামড় দিয়েছে যে ডাক্তার বলেছে যে ক্ষত সারতে কমপক্ষে একমাস লাগবে। অটো চালাতে পারবো না, অথচ এটি আসার রুটি-রুজি। এছাড়া বানরের ভয়ে আমি সেদিন আমি বাড়ি ফিরতে পারিনি। বাড়িতে ছোট ছেলেমেয়ে আছে। তাদের আক্রমণ করলে কী হবে? আমি এখনও ভয় পাচ্ছি।

প্রায় ৩০ জন মানুষের তিন ঘণ্টা চেষ্টার পর বানরটিকে ধরা সম্ভব হয়। বন বিভাগ বানরটিকে প্রায় ২২ কিলোমিটার দূরে নিয়ে বালুর জঙ্গলে ছেড়ে দেয়।

গ্রামবাসীও তাদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরে যায়। কিন্তু এক সপ্তাহ যেতে না যেতে ফিরে আসে বানরটি। বনের কাছ দিয়ে যাওয়া একটি ট্রাকে চেপে বসে সেটি কোত্তিগেহারা গ্রামে ফিরে যায়।

বানরটিকে ফিরে এসেছে জানার পর জগদীশ লুকিয়ে যান। তিনি বলেন, ‘গ্রামে বানরটি ফিরে এসেছে শুনে ভয়ের স্রোত বয়ে যায় শরীরে। আমি নিজেই বন বিভাগকে ডাকি আর তাদের দ্রুত বানরটি ধরতে বলি। লুকানো ছেড়ে বেরোতে পারছি না। আমি জানি এটাই সেই বানর কারণ শেষবার আমরা সকলেই তার কানে একটা দাগ দেখেছিলাম আর এবারও বন্ধুরা জানিয়েছে বানরটিরও একই দাগ আছে।

স্থানীয় বন কর্মকর্তা মোহন কুমার বলেন, আমরা সত্যিই জানি না বানরটি কেন এক জন মানুষের ওপর আক্রমণ করছে। জানি না আগে তিনি প্রাণীটির কোনও ক্ষতি করেছেন কিনা কিংবা এটি কেবল তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়া কিনা। তবে এবারই প্রথমবার কোনও বানরকে এভাবে মানুষের ওপর আক্রমণ করতে দেখছি।

গত ২২ সেপ্টেম্বর বানরটিকে আবারও ধরা হয়। এবার সেটিকে গভীর জঙ্গলে ছাড়া হয়েছে। আর জগদীশও এখনও ঘরেই থাকছেন আর আশা করছেন বানরটি আর ফিরে আসবে না।

সূত্রঃ ভোরের পাতা