স্কুলছাত্রীকে ধ’র্ষণের পর শ্বা’সরোধে হ’ত্যা, প্রধান আ’সামি গ্রে’প্তার

সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলায় ১০ম শ্রেণির এক স্কুলছাত্রীকে ধ’র্ষণের পর শ্বা’সরোধে হ’ত্যা মা’মলার প্রধান আ’সামি পার্থ মণ্ডলকে গ্রে’প্তার করেছে সাতক্ষীরা গোয়েন্দা পু’লিশ।

পু’লিশি জিজ্ঞাসাবাদে ধ’র্ষণ ও হ’ত্যা দায় স্বীকার করে ধ’র্ষণ পরবর্তী হ’ত্যার লোমহর্ষক বর্ণনা দিয়েছে বি’কৃত মানসিকতার প্রেমিক পার্থ মণ্ডল।

রোববার (২৬ সেপ্টেম্বর) দুপুর ১২ টায় নিজ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান জেলা পু’লিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান।

জানা গেছে, বি’কৃত মানসিকতার যুবক পার্থ মণ্ডল ওই তরুণীকে প্রেমের ফাঁদে ফেলে নির্জন স্থানে ডেকে নেয়। ধ’র্ষণের এক পর্যায়ে ওই তরুণীর উপর চালানো হয় লোমহর্ষক নি’র্যাতন। পরে গলায় ওড়না পেঁ’চিয়ে শ্বা’সরোধে হ’ত্যা করা হয় তাকে।

এদিকে, হ’ত্যাকারী পলাতক পার্থ মণ্ডলকে ধরতে আইনশৃঙ্খলা বাহিনী একাধিক সংস্থা মাঠে নামে। গতরাতে সীমান্ত পেরিয়ে ভারতে পালানোর সময় সদর উপজেলার বৈকারী সীমান্ত থেকে তাকে গ্রে’প্তার করে সাতক্ষীরা গোয়েন্দা পু’লিশ।

এসময় উদ্ধার করা হয় হ’ত্যাকাণ্ডে ব্যবহৃত তার একটি বাইসাইকেল। আর প্রানসায়ের খালে ফেলে দেওয়া পার্থ মণ্ডলের মোবাইল উদ্ধারের চেষ্টা করছে পু’লিশ।

অন্যদিকে, সকাল সাড়ে ১১টায় সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সামনে ধ’র্ষণ পরবর্তী হ’ত্যার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবিতে মানববন্ধন করে নিহত ওই শিক্ষার্থীর সহপাঠী, শিক্ষক ও গ্রামবাসী।

বৃহস্পতিবার (২৩ সেপ্টেম্বর) রাতের কোন এক সময় সাতক্ষীরার দেবহাটা উপজেলার ১০ম শ্রেণির ছা’ত্রীকে ধ’র্ষণের পর হ’ত্যা করে পার্থ মণ্ডল। পরদিন পরিত্যক্ত এক বাড়ির পিছন থেকে তার ম’রদেহ উদ্ধার করে পু’লিশ।

এ ঘটনায় ওই শিক্ষার্থীর বাবা বাদী হয়ে পার্থ মণ্ডলের নাম উল্লেখ করে ধ’র্ষণ পরবর্তী হ’ত্যার অভিযোগে মা’মলা দায়ের করেন।

সূত্রঃ সময় টিভি নিউজ