স্কুল ড্রেস পরা মেয়েটি এখন দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন বলিউড!

নীল-সাদা ড্রেসে বান্ধবীর হাত ধরে দাঁড়িয়ে আছে ছোট্ট মেয়েটি। দুজনেরই সরল হাসিমুখ। সেদিনের সেই ছোট্ট মেয়েটিই বর্তমানের বলিউড কুইন। তিনি কঙ্গনা রানাউত।

প্রায়ই নিজেদের ছোটবেলার ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় অনুরাগীদের সঙ্গে শেয়ার করেন বলি তারকারা। শৈশবের সেই সরল মুখগুলো নেটিজেনদের মন কেড়ে নেয়। সম্প্রতি নিজের ছোটবেলার ছবি শেয়ার করেছেন বলিউডের কুইন খ্যাত এই অভিনেত্রী।

ছোটবেলার স্মৃতিবিজড়িত আরও একটি ছবি শেয়ার করেছেন কঙ্গনা। স্কুল থেকে পিকনিকে গিয়ে ছবিটি তুলেছিলেন তিনি। সে ছবিতে তাকে দেখা যাচ্ছে গোলাপি ও সবুজ রঙের লেহেঙ্গায়। এতেও তার সঙ্গে ছিল আরেক শিশু। ছবিটি শেয়ার করে কঙ্গনা জানিয়েছেন, স্কুল থেকে পিকনিকে নিয়ে যাওয়া হয়েছিল।

কঙ্গনার বাড়ি হিমাচলে। সেখানকার এক পাহাড়ি গ্রামেই বেড়ে ওঠেন তিনি। তার পরিবার এখনও সেখানেই থাকেন। কাজের ফাঁকে সময় পেলেই নৈসর্গিক সৌন্দর্যের লীলাভূমিতে ছুটে যান বলিউড কুইন। মহামারিকালে অনেকটা সময় তিনি সেখানে কাটিয়েছেন।

বলিউডে পরিচিত কেউ ছিল না কঙ্গনার। পরিবারের অমতেই হিমাচল ছেড়ে অভিনয়ের জন্য মুম্বাই গিয়েছিলেন তিনি। অনুরাগ বসুর গ্যাংস্টার দিয়েই প্রথম পরিচিতি পান এই অভিনেত্রী। চ্যালেঞ্জিং ইন্ডাস্ট্রিতে ধীরে ধীরে নিজের অবস্থান শক্ত গড়েছেন। আর মাধবনের বিপরীতে ‘তানু ওয়েডস মানু’ ঘুরিয়ে দিয়েছিল তার ক্যারিয়ারের চিত্র। পরে ‘কুইন’ সিনেমার জন্য জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পান কঙ্গনা। এরপর আর পেছন ফিরে তাকাতে হয়নি তাকে। বর্তমানে অভিনয়ের পাশাপাশি পরিচালনা ও প্রযোজনা করছেন তিনি।

প্রসঙ্গত, মানালিতে একটি বিলাসবহুল বাড়ি তৈরি করেছেন কঙ্গনা। এই বাড়ি তৈরি করতে তার খরচ হয়েছে ৩০ কোটি রুপি। তার সেই বাড়িতে বেডরুম আছে ৮টি। প্রত্যেকটি ঘরের দরজা খুললে সামনে উঁকি দেবে পাহাড়। ৮টি ঘরের সামনেই রয়েছে ব্যালকনি। বাড়ি তৈরির সময় প্রতি মাসে মানালিতে হাজির হয়ে নির্মাণ কাজের দেখাশোনা করেছেন কঙ্গনা। বাড়িটি সাজানোর জন্য ২০ কোটি রুপি খরচ করেছেন এই অভিনেত্রী।

জানা যায়, ডিজাইনার শবনম গুপ্তাই কঙ্গনার এই বাড়ি সাজিয়ে গুছিয়ে দিয়েছেন। শবনম-এর সঙ্গে আলোচনা করেই মানালির বাড়ির অন্দরসজ্জা করিয়েছেন কঙ্গনা। আর এই বাড়িতে জিম, যোগ রুমসহ যাবতীয় প্রয়োজনীয় জিনিস রয়েছে।

সূত্র: হিন্দুস্তান টাইমস