ঈদুল আযহার পরে খুলছে বাংলাদেশের আ’দালত: আইনমন্ত্রী

চার মাসের বেশি সময় বন্ধ থাকার পর, ঈদুল আযহার পরে বাংলাদেশের আ’দালতগুলো পুনরায় খুলে দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন দেশটির আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।
তিনি বিবিসি বাংলাকে বলেছেন, ”আম’রা এই ধারণায় উপনীত হয়েছি যে, আমাদের করো’নাভাই’রাস, কোভিড-১৯ এর সাথে বসবাস করতে হবে।

সেজন্য আমি যদ্দুর জানি, মাননীয় প্রধান বিচারপতির সঙ্গে আমা’র শেষ যে আলাপ হয়েছে, সেটা হচ্ছে ঈদের পরে স্বাভাবিক আ’দালতগুলো (নিম্ন আ’দালত) খুলে দেয়া হবে।”

তবে ফৌজদারি মা’মলার বিচারিক কাজে বা সাক্ষ্যগ্রহণ প্রক্রিয়ায় কিছু বাধ্যবাধকতা থাকতে পারে বলে তিনি জানান। কিন্তু দেওয়ানি মা’মলায় সেটা নাও থাকতে পারে।
আইনমন্ত্রী বলছেন, ”এর কারণ হচ্ছে, যেসব আসামী কারাগারে আছেন, এখন পর্যন্ত আমাদের কারাগারগুলোয় কোভিড-১৯ করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ হয় নাই। এবং আম’রা সেই অবস্থায় রাখতে চাই। আ’দালতের সেই কাজটা কী’ভাবে করবো, আইনের কী’ পরিবর্তন লাগবে, সেদিকে আম’রা এগিয়ে যাবো। ”

”কিন্তু অন্যান্য কাজের সবকিছুই স্বাভাবিকভাবে, সাধারণ আ’দালতের যেভাবে কাজ হচ্ছিল, সেই ভাবেই হবে। সেটা ঈদের পরেপরেই খুলে দেয়া হবে।” বলছেন মি. হক।
হাই’কোর্ট বা সুপ্রিম কোর্ট কবে খুলবে বা কী’ভাবে চলবে, সেই ব্যাপারে প্রধান বিচারপতি সিদ্ধান্ত নেবেন বলে তিনি জানান।

বাংলাদেশে গত মা’র্চ মাসে করো’নাভাই’রাসের সংক্রমণ শুরু হওয়ার প্রেক্ষাপটে সাধারণ ছুটি ঘোষণা করা হলে উচ্চ ও নিম্ন আ’দালতের কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। তবে ৩১শে মে থেকে ভা’র্চুয়াল আ’দালতের মাধ্যমে বিচারিক কর্মকা’ণ্ড শুরু হয়। কিন্তু নিম্ন আ’দালতে শুধুমাত্র জামিন শুনানি এবং নতুন মা’মলার আবেদন গ্রহণের মধ্যেই এই আ’দালতের কার্যক্রম সীমাবদ্ধ রয়েছে। তবে উচ্চ আ’দালতে বিভিন্ন বিষয়ে শুনানি হয়েছে।

x