৩ বছরের শি’শুকে নৃ’শংসভাবে হ’ত্যার স্বীকারোক্তি দিল এই ব্যক্তি

ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুরে ৩ বছরের শি’শু জিন্নাতুন নিসাকে কু‌‌’পিয়ে ও গলাকে’টে হ’ত্যার ঘটনায় আ’দালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দী দিয়েছে অ’ভিযু’ক্ত কাপড় ব্যবসায়ী কেসমত ফকির (৬০)।

বৃহস্পতিবার সে হ’ত্যার দায় স্বীকার করে আ’দালতে জবানবন্দী প্রদান করে। কেসমত ফকিরের বাড়ি রাজবাড়ী জে’লায়। সে কোটচাঁদপুর উপজে’লা শহরে ফেরি করে কাপড় বিক্রি করতো। ঝিনাইদহের পু’লিশ সুপার মো: হাসানুজ্জামান জানান, গত ১৭ মা’র্চ কোটচাঁদপুর রেলস্টেশন এলাকার দরগাপাড়া এলাকার তোফাজ্জে’ল হোসেন টুকু মিয়ার ৩ বছরের শি’শু জিন্নাতুন নিসাকে কু‌‌’পিয়ে ও গলাকে’টে হ’ত্যা করে পালিয়ে যায় কেসমত ফকির। তার পরিচয় ও কোন ছবি না থাকায় আসামী গ্রে’ফতারে বেগ পেতে হয় জে’লা পু’লিশের।

হ’ত্যাকারীকে গ্রে’ফতার জে’লা সীমান্তবর্তী এলাকা, রেল স্টেশন, বাসস্টপসহ বিভিন্ন স্থানে টহল দেওয়া শুরু করে। এ ঘটনার কয়েকদিন পর যশোরের অভ’য়নগর এলাকায় এক নারীকে কু‌‌’পিয়ে হ’ত্যার ঘটনায় একজনকে গণপি’টুনি দিয়ে পু’লিশে খবর দেয় এলাকাবাসী। গণমাধ্যমে আ’ট’ককৃতর ছবি প্রকাশ হলে ঝিনাইদহের কোটচাঁদপুর থা’না পু’লিশ শি’শু হ’ত্যাকারী বলে নিশ্চিত হয়।

পরবর্তীতে অ’ভিযু’ক্ত কেসমত ফকিরকে শি’শু জিন্নাতুন হ’ত্যা মা’মলায় গ্রে’ফতার দেখিয়ে যশোর জে’লা কারাগার থেকে ঝিনাইদহ জে’লায় হাজির করার জন্য আ’দালতে আবেদন করে পু’লিশ। আবেদন মঞ্জুর হওয়ার পর আ’দালতে হাজির করা হলে সে শি’শু জিন্নাতুন নিসা হ’ত্যার দায় স্বীকার করে।