বিপদে আল্লাহর ওপরই ভরসা করা উচিত

বর্তমান বিশ্বে সবচেয়ে আলোচিত বিষয় হচ্ছে করোনাভাইরাস। দিনদিন এই ভাইরাসে মৃ’তের সংখ্যা বেড়েই চলছে। সারাবিশ্বে এখন পর্যন্ত এই ভাইরাসে মৃ’ত্যু হয়েছে ৮ হাজার মানুষের। এরইমধ্যে আ’ক্রা’ন্তের সংখ্যা ২ লাখ ছা’ড়িয়েছে। এছাড়া চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৬৩ হাজার ৬৮৮ জন। ইতোমধ্যে এই ভাইরাসে বাংলাদেশে একজনের মৃ’ত্যু হয়েছে। আ’ক্রান্ত হয়েছে ২৭ জন।

এমতাবস্তায়, কানাডার টরন্টো মসজিদের ইমাম ও খতিব ড. ওয়েল শিহাব। কোভিড-১৯ খ্যাত করোনাভাইরাস প্র’তিরোধে মুসলিম সম্প্রদায়ের আচরণ ও করণীয় কেমন হবে সে বিষয়ে ইসলামিক উপদেশ এবং কিছু পরামর্শ দিয়েছেন। করোনা মোকাবিলা ইমাম ড. ওয়ালি শিহাবের পরামর্শগুলো হুবহু তুলে ধরা হলো…

করোনাভাইরাসে আ’ক্রান্ত কঠিন ও গুরুত্বপূর্ণ সময়ে আমাদের উচিত, মহান আল্লাহ তাআলার সঙ্গে সুসম্পর্ক গড়ে তোলা। কেননা আল্লাহর তাআলা এক নাম আশ-শাফি। যার অর্থ হলো ‘নিরাময়কারী’। কুরআনে এসেছে- وَإِذَا مَرِضْتُ فَهُوَ يَشْفِينِ
অর্থাৎ যখন আমি রোগাক্রান্ত হই, তখন তিনিই (আল্লাহ) আরোগ্য দান করেন। (শুরা শুআরা : আয়াত ৮০)
অন্যদিকে রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম অসুস্থদের জন্য সুস্থতার একটি সুন্দর দোয়া শিখিয়েছেন। আর তা হলো-
اللَّهُمَّ رَبَّ النَّاسِ اَذْهِبَ الْبَاسِ وَاشْفِ أَنْتَ الشَّافِي لاَ شِفَاءَ إِلاَّ شِفَاؤُكَ شِفَاءً لاَ يُغَادِرُ سَقَمًا

উচ্চারণ : ‘আল্লাহুম্মা রাব্বান-নাসি, আজহিবাল বাসি, ওয়া ইশফি আনতাশ-শাফি, লা শিফাআ ইল্লা শিফাউকা। শিফায়ান লা ইয়ুগাদিরু সাক্বামা।’ (বুখারি, মুসলিম)
অর্থ : হে আল্লাহ! আপনি মানুষের রব, রোগ নিরাময়কারী। (আপনি) আরোগ্য দান করুন, আপনি আরোগ্য দানকারী। আপনি ছাড়া আর কেউ আরোগ্য দানকারী নেই। এমন আরোগ্য দান করুন, যা কোনো রোগ অবশিষ্ট রাখে না।’
প্র’তিরোধ ও সতর্কতা

১।পানি এবং সাবানের সাহায্যে ১৫-২০ সেকেন্ড উভয় হাত ভালোভাবে ধুয়ে নেয়া। যদি পানি কিংবা সাবান পাওয়া না যায় তবে হ্যান্ড স্যানিটাইজার জীবাণুনাশক দিয়ে হাত পরিষ্কার করা। ওজুর সময় প্রথমেই উভয় হাত ভালোভাবে ধুয়ে নেয়া।

২।উভয় হাত ভালোভাবে না ধুয়ে চোখ, নাক কিংবা মুখের কোনো অংশ স্পর্শ না করা।
৩।অসুস্থ ব্যক্তিদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা বা বেশি সংস্পর্শে না থাকা।

৪।অসুস্থতা এড়িয়ে চলতে বাড়ি অবস্থান করা। বিনা প্রয়োজনে বাইরে বেশি বের না হওয়া।
৫।অসুস্থ হলে বাড়ি অবস্থান করে যথাযথ চিকিৎসা ও সেবা গ্রহণ করা।

আল্লাহর ওপর আস্থা এবং বিশ্বাস
সর্বোপরি মহান আল্লাহর ওপর অগাধ আস্থা এবং বিশ্বাস স্থাপন করে কুরআন-সুন্নাহর দিকনির্দেশনা মেনে চলা উচিত। রোগ ব্যাধিতে যেসব দিকনির্দেশনা দিয়েছে ইসলাম।
মুমিন মুসলমানের জন্য চিকিৎসা ও সেবা গ্রহণের পাশাপাশি আল্লাহর কাছে সাহায্য প্রার্থনা ও তার ওপর ভরসা করা জরুরি। আল্লাহ তাআলাই সব কাজ নির্বাহ করে থাকেন। আল্লাহ তাআলা বলেন-

(হে রাসুল!) আপনি বলুন, আমাদের কাছে কিছুই পৌঁছবে না, কিন্তু যা আল্লাহ আমাদের জন্য রেখেছেন; তিনি আমাদের কার্যনির্বাহক। আল্লাহর ওপরই মুমিনদের ভরসা করা উচিত।’ (সুরা তাওবা : আয়াত ৫১)

আল্লাহ তাআলার ক্ষমা ও দয়ার ওপর অগাধ আস্থা এবং বিশ্বাসই মানুষকে ম’হামারি করোনাসহ দুনিয়ার যাবতীয় বিপদ-আপদ থেকে সুস্থ থাকতে সহায়তা করবে। আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে আল্লাহর ওপর ভরসা করার পাশাপাশি করোনাসহ যাবতীয় মহামারি প্রতিরোধে যথাযথ সতর্কতা অবলম্বন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

x