মৃ’ত্যু’র পথযাত্রী ক্যানসারে আ’ক্রান্ত প্রে’মি’কে বি’য়ে করলেন প্রে’মিকা, ভালো’বাসার দৃ’ষ্টান্ত গড়লেন তরুণী।

২২ বছরের যুব’ক নাভা’র হারবার্ট। ক্যানসারে আ’ক্রান্ত এক প্রে’মিক। ভ’য়ংক’র ব্রেন টিউমা’র নিয়ে মা’রা’ যাবেন মাত্র একদিন পরই। প্রে’মিকা মাইয়া ফ্যা’লও’য়াসার ঠিক এই সময়ই সিন্ধান্তটি নিলেন। মৃ’ত্যু’ পথযা’ত্রীকে বিয়ে করে ভালো’বাসার দৃষ্টা’ন্ত গড়লেন এই অস্ট্রে’লীয় তরুণী।

ব্রিটিশ সংবাদ মাধ্য’ম দ্য সান-এ প্রকাশিত প্রতিবে’দনের তথ্য অনুযায়ী, নাভা’র হার’বার্ট কুইন্স’ল্যান্ডের গো’ল্ড কোস্ট দলের রাগবি খেলোয়াড়। ২২ বছর বয়সী এ তরুণ ব্রেইন টিউমা’রে আ’ক্রান্ত ছিলেন। হার’বার্টের সঙ্গে দীর্ঘদিনের প্রে’ম ছিল মা’ইয়া ফ্যাল’ওয়া’সার নামের এক তরুণীর।

প্রে’মিকের মৃ’ত্যু নিশ্চিত জেনেও হারবার্ট’কে বিয়ে করেন তিনি। গোল্ড কো’স্টে আবে’গঘন এক বিয়ের অনু’ষ্ঠানে হাজির ছিলেন দুই’জনের পরিবার, স্বজন এবং বন্ধুবা’ন্ধবেরা।

পরদিন গত মঙ্গল’বার রাতে’ই মা’রা যান হারবার্ট। বিয়ের অনু’ষ্ঠানে হু’ইল চে’য়ারে চড়ে বরের বেশে হাজির হন হার’বার্ট। ফুল হাতে সাদা গাউনে কনে মাইয়া। জাঁকজ”মক এক অনুষ্ঠানে পরস্প’রকে বরণ করে নেন এ নবদম্পতি। বিয়েতে আয়োজন করা হয় নাচ-গান, পা’নীয় আর খাবারের।

মৃ’ত্যুর একদিন আগে বিয়ে করলেও দীর্ঘ সময় একসঙ্গে থাকছি’লেন তারা। তাদের ১১ মাস বয়সী একটি পুত্র সন্তানও রয়েছে। মাইয়া বলেন, ‘আমি আমা’র সবচেয়ে ঘনি’ষ্ঠ বন্ধু’কে হারালাম। আমা’র স্বা’মীকে হারা’লাম।

আমা’র ছে’লে হারি’য়েছে তার বাবাকে। আজ আমা’র শোকের দিন।’ বিয়েতে উপস্থিত হওয়ায় অ’তিথি’দের প্রতিও কৃত’জ্ঞতা প্রকাশ করেন মা’ইয়া। তিনি বলেন, ‘আমি আমা’র পরিবার ও বন্ধু’দের প্রতি ভা’লোবাসা জানাচ্ছি। এমন কঠিন মু’হূর্তে তাঁরা আমা’র পাশে ছিলেন, আমা’কে সম’র্থন দিয়ে গেছেন।’

x