যাদের বিপক্ষে ব্যাটিং করা কঠিন ছিল, জানালেন সাঙ্গাকারা

ক্রিকেট ক্যারিয়ারে বিশ্বের যেসব তারকা বোলারকে মোকাবেলা করতে রীতিমতো হিমশিম খেতে হয়েছে তাদের নাম প্রকাশ করেছেন শ্রীলংকার কিংবদন্তি ক্রিকেটার কুমা’র সাঙ্গাকারা।

লংকান সাবেক এই অধিনায়ক সম্প্রতি জানিয়েছেন, পা’কিস্তানের সাবেক তারকা পেসার ওয়াসিম আকরাম ছিলেন দুর্দান্ত একজন বোলার। তার বোলিংয়ের বিপক্ষে মুখোমুখি হওয়া আমা’র জন্য দুঃস্বপ্ন ছিল।

ক্রিকেট থেকে অবসরে ধারাভাষ্য পেশায় জড়িয়ে যাওয়া পা’কিস্তানের সাবেক অধিনায়ক ওয়াসিম আকরাম ছিলেন ইতিহাসের অন্যতম সেরা পেসার। তিনি দেশের হয়ে ১০৪টি টেস্ট আর ৩৫৬ ওয়ানডেতে ৯১৬ উইকেট শিকার করেছেন।

ক্রিকেট ইতিহাসের দ্বিতীয় ব্যাটসম্যান হিসেবে আন্তর্জাতিকে ৫৯৪ ম্যাচে ৬৩টি সেঞ্চু’রির সাহায্যে রেকর্ড দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৮ হাজার ১৬ রান সংগ্রহ করেছেন কুমা’র সাঙ্গাকারা।

বর্তমানে বিশ্ব ক্রিকে’টের আইন প্রণয়কারী সংস্থা মেরিলিবোন ক্রিকেট ক্লাবের (এমসিসি) সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন সাঙ্গাকারা।
৪২ বছর বয়সী সাবেক এই তারকা ক্রিকেটার বলেছেন, ভা’রতের সাবেক তারকা পেসার জহির খানও দুর্দান্ত একজন বোলার ছিলেন। আমি অনেকবার তার বোলিংয়ের মুখোমুখি হয়েছিলাম। কিন্তু তার বিপক্ষে খেলা ছিল অ’ত্যন্ত কঠিন।

ভা’রতীয় সাবেক তারকা পেসার জহির খান দেশের হয়ে ৯২টি টেস্ট আর ২০০ ওয়ানডে ম্যাচে শিকার করেছেন ৫৯৩ উইকেট।
শ্রীলংকার হয়ে ৪৫টি ওয়ানডে, ২২টি টি-টোয়েন্টি আর ১৫টি টেস্ট ম্যাচে নেতৃত্ব দেয়া সাঙ্গাকারা আরও বলেছেন, শ্রীলংকার কন্ডিশনে মুত্তিয়া মুরালিধরনের বল মোকাবেলা করা ছিল আমা’র জন্য খুবই ক’ষ্টের। তিনি একজন অসাধারণ বোলার ছিলেন। তার বলে টার্ন এবং বৈচিত্র্য ছিল।

মুত্তিয়া মুরালিধরন ছিলেন বিশ্বের যে কোনো ব্যাটসম্যানের জন্য ভ’য়ঙ্কর এক নাম। টেস্ট ক্রিকে’টের ইতিহাসে মাত্র ১৩৩ ম্যাচে রেকর্ড সর্বোচ্চ ৮০০ উইকেট শিকার করেছেন তিনি। আর ৩৫০ ওয়ানডেতে তার শিকার ৫৩৪ উইকেট। আন্তর্জাতিক ক্রিকে’টে তিনিই সবচেয়ে বেশি উইকেট শিকারের নজির স্থাপন করেছেন।

x