হোটেলের ঘরে গিয়ে পরিচালক ক্রমাগত জো’র করতে লাগলেন…

২০০৫ সালে বলিউডে প্রদীপ সরকারের ছবি ‘পরিণীতা’ দিয়ে যাত্রা শুরু করেন বিদ্যা বালান। অবশ্য তার আগেই দক্ষিণী ছবিতে মুখ দেখিয়ে ফে’লে ন এ গুণী অ’ভিনেত্রী।

এ ছা’ড়াও বাংলা ছবি ‘ভালো থেকো’য় অ’ভিনয় করে চলচ্চিত্র সমা’লোচকদের প্রশং’সা কু’ড়িয়ে ছিলেন বিদ্যা। তবে বলিউডে পা রাখার পর থেকে আর পেছনে ফি’রে তাকাতে হয়নি তাকে। এর আগে, যদিও বিদ্যা পেরিয়ে এসেছিলেন কিছু অ’ন্ধকার অ’ধ্যায়।

হোটেল রুমে নিয়ে যেতে চেয়েছিলেন পরিচালক! বিদ্যা বালান নিজে’র ফে’লে আসে দিনের স্মৃ’তি রোমন্থনে সেই তি’ক্ত অ’ভি’জ্ঞতা শে’য়ার ক’রেছেন। এক সাক্ষা’ৎকারে তিনি বলেন, ‘একটা সময় আমা’র মনে আছে, আমি তখন ছিলাম চেন্নাইয়ে। পরিচালক এসেছিলেন আমা’র কাছে।

আমি বলেছিলাম, চলুন কফি শপে গিয়ে বসি। উনি ক্র’মাগত জো’র ক’রতে লা’গলেন, হোটেলের ঘরে গিয়ে কথা বলার জন্য। আমি আমা’র বাড়ির দরজাটা খু’লে দিয়েছিলাম। পাঁচ মিনিটে উনি বেরিয়ে গিয়েছিলেন।’

বিদ্যা বালান আরও জা’নান, দক্ষিণের আরও একজন পরিচালক তাকে দেখিয়ে বিদ্যার রূপের সমা’লোচনা করেন। বলেন, এমন দে’খতে কেউ কী’ভাবে ফিল্মের নায়িকা হতে পারেন?

এরপর বহুদিন পর্যন্ত বিদ্যা আয়নার সামনে আসতেন না অবসাদে। পুরোনো দিনের সেই সব কথা রোমন্থন করেন বিদ্যা বালান। সাক্ষাৎকারে বিদ্যা জা’নান, কেরিয়ারের শুরুর দিকে তিনি দক্ষিণী ছবি দিয়ে শুরু করেন। যদিও বহু ফিল্ম থেকে তাকে সরিয়ে দেয়া হয়।

পাশাপাশি তিনি জা’নান, একটি দক্ষিণী ছবিতে অ’ভিনয়ের সময় চিত্রনাট্যে যে ধ’রনের মশকরার সংলাপ ব্যবহার হয়েছিল, তাতে অস্ব’স্তি হ’চ্ছিল বিদ্যার। এরপরই তিনি ফিল্মটি ছে’ড়ে দেন। পরে ছবির নি’র্মাতারা তাকে আ’ইনি নো’টিশও দেন।

x